ভারতে হাজির গ্রিন ফাঙ্গাস! সংক্রমণ থেকে সতর্ক থাকতে জানুন…

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

কালো, সাদা, হলুদ ছত্রাকের পর এই বার ভারতে দেখা গেল ‘সবুজ ছত্রাক’ (Green Fungus)। মধ্যপ্রদেশের ইন্দোরে এক রোগীর শরীরে ধরা পড়ে এই গ্রিন ফাঙ্গাস (Green Fungus)। ৩৪ বছরের এক রোগী যিনি সদ্য কোভিড (Corona) মুক্ত হয়েছেন তাঁর দেহে এই ছত্রাকের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। চিকিৎসার ভাষায় এই সংক্রমণের নাম ‘আস্পারগিলোসিস সংক্রমণ’। এটি মূলত দানা বাঁধে ফুসফুসে।

আরও পড়ুন : পিঠ-ঘাড়-কাঁধের যন্ত্রণায় নাজেহাল, সমস্যা এড়াতে মেনে চলুন সহজ কয়েকটি নিয়ম

এই সংক্রমণ এত দিন বিরল ছিল। আক্রান্ত ওই যুবকের শরীরে গ্রিন ফাঙ্গাসের (Green Fungus) সংক্রমণ দেখা গিয়েছে বলে জানিয়েছেন ইনদওরের শ্রী অরবিন্দ ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সেস (সেইমস)-এর ফুসফুস সংক্রমণ বিভাগের প্রধান রবি দোসি। সেখান থেকে জানা গিয়েছে, ওই রোগীর ফুসফুস, সাইনাস এবং রক্তে ছড়িয়ে গিয়েছে সংক্রমণ।

নয়া এই ছত্রাকের আগমনে বেশ উদ্বিগ্ন চিকিৎসকরা। শ্রী অরবিন্দ ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সেসের চেষ্ট ডিজিজ বিভাগের প্রধান রবি দোশী জানান, মধ্যপ্রদেশের (Madhya Pradesh) ওই ব্যক্তির আগে করোনা হয়েছিল। তাঁর ফুসফুসে ১০০ শতাংশ করোনা (Coronavirus) সংক্রমণ ছিল। দীর্ঘদিন হাসপাতালে ভরতি ছিলেন তিনি। তাঁকে আইসিইউতে রেখে চিকিৎসা করা হয়। যদিও তিনি বর্তমানে করোনা জয়ী। ফের দিনকয়েক আগে নানা ধরনের শারীরিক সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভরতি হন মধ্যপ্রদেশের ওই ব্যক্তি। বর্তমানে নাক দিয়ে রক্ত পড়া, অত্যধিক দুর্বলতা এবং ওজন কমতে থাকার মতো একাধিক উপসর্গ দেখা দেয়। প্রথমে মনে করা হয় তিনি ব্ল্যাক ফাঙ্গাসে আক্রান্ত। সেই অনুযায়ী ওই ব্যক্তির নানা পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়। তবে জানা যায় ব্ল্যাক নয়, তাঁর শরীরে থাবা বসিয়েছে গ্রিন ফাঙ্গাস।

প্রাথমিক উপসর্গ কী ?
এই রোগের প্রাথমিক লক্ষণ খানিকটা ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের মতো। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই রোগীর নাক দিয়ে রক্ত পড়ে থাকে। শারীরিক দুর্বলতার পাশাপাশি ওজনও দ্রুত কমতে শুরু করে।

কী এই গ্রিন ফাঙ্গাস (Green Fungus)?
ডাক্তারি পরিভাষায় সবুজ ছত্রাককে আস্পারগিলোসিস(Aspergillosis) বলা হয়। বিশেষজ্ঞদের মতে, মিউকরমাইকোসিস বা ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সঙ্গে এর কিছু চারিত্রিক পার্থক্য রয়েছে। ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সমগোত্রীয় হলেও অনেক বেশি সংক্রমণ ক্ষমতা এই সবুজ ছত্রাকের। এমনকী ফুসফুস ও রক্তেও দ্রুত সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ে বলে জানা গিয়েছে।

ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের সঙ্গে এর পার্থক্য কোথায়?
বিশেষজ্ঞদের মতে, এই সংক্রমণের সঙ্গে ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের উপসর্গ অনেকটাই এক। তবে, এর সংক্রমণ ক্ষমতা কালো ছত্রাকের থেকে বেশ কিছু পার্থক্য দেখা গিয়েছে। তবে এই রোগ যেহেতু একদমই নতুন তাই করোনা (Covid) থেকে সেরে ওঠা এবং সাধারণ রোগীর সংক্রমণ কতটা আলাদা, তাও খুঁটিয়ে গবেষণার পরেই বলা সম্ভব বলে মনে করছেন

কাদের ঝুঁকি বেশি?
তবে যাদের মারত্মক পর্যায়ের করোনা সংক্রমণ হয়েছিল তাদের ক্ষেত্রেই এই রোগের ঝুঁকি সর্বাধিক। এই তথ্য সামনে আসতেই করোনা জয়ীদের মধ্যে নতুন করে শুরু হয়েছে উদ্বেগ। এমনকী ইন্দোরের যে ব্যক্তির ক্ষেত্রে এই রোগ ধরা পড়ে তার ফুসফুসেও ১০০ শতাংশ করোনা সংক্রমণ ছিল বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন। এমনকী আইসিইউতে ভর্তিও ছিলেন বলে জানা গিয়েছে।

প্রাথমিক উপসর্গ কী ?
এই রোগের প্রাথমিক লক্ষণ খানিকটা ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের মতো। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই রোগীর নাক দিয়ে রক্ত পড়ে থাকে। শারীরিক দুর্বলতার পাশাপাশি ওজনও দ্রুত কমতে শুরু করে।

আরও পড়ুন : নাভিতে দু’ফোঁটা তেল মালিশ করুন রোজ…জানুন কী লাভ হবে তাতে

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest