Illegal Goa bar row: Smriti Irani denies charges on daughter, Congress shows this 'proof'

Smriti Irani: মৃতের নামে মদ বিক্রির লাইসেন্স পুনর্নবীকরণ! স্মৃতি ইরানি-কন্যাকে পাঠানো হল নোটিস

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

বিতর্কে জড়াল কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানির কন্যার রেস্তরাঁ। জনৈক মৃত ব্যক্তির নামে পানশালার লাইসেন্স পুননর্বীকরণ করার অভিযোগ উঠেছে স্মৃতি-কন্যা জোয়িশের রেস্তরাঁর বিরুদ্ধে। উত্তর গোয়ার ওই রেস্তরাঁর কর্তৃপক্ষকে কারণ দর্শানোর নোটিস (শোকজ নোটিস) দিয়েছে আবগারি দফতর।

কংগ্রেস নেতা পবন খেরা দাবি করেন, যে পুলিশ আধিকারিক ওই রেস্তোরাঁকে নোটিশ পাঠানোর ‘সাহস’ দেখিয়েছিলেন, তাঁকে নিশানা করা হচ্ছে। তাঁকে বদলি করার প্রক্রিয়া চলছেও বলে দাবি করা হয়। কংগ্রেস নেতা বলেন, ‘আপনার সমর্থকরা যখন লুলু মল-হনুমান চালিশা-নমাজের বৃত্তে আটকে আছেন, আপনার ছেলেমেয়েরা বিদেশে পড়াশোনা করছে (যেটা ভালো জিনিস, সেটা করা উচিত) বা আপনার পৃষ্ঠপোষকতায় বেআইনি কাজ করছেন।’

সমাজকর্মী এয়ারেস রডরিগের অভিযোগের ভিত্তিতে বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। রডরিগ অভিযোগ করেছিলেন, গোয়ার ওই পানশালার মালিক লাইসেন্স পেতে ‘ভুয়ো’ নথি জমা করেছেন। আদতে পানশালার মালিক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতির পরিবার। রডরিগের অভিযোগের ভিত্তিতে ২১ জুলাই গোয়ার শুল্ক বিভাগের কমিশনার নারায়ণ গাদ ওই রেস্তরাঁর মালিককে নোটিস পাঠান। রডরিগের আরও অভিযোগ, এর পরেই নারায়ণকে বদলির প্রক্রিয়া শুরু করে গোয়ার বিজেপি সরকার।

আরও পড়ুন: Accident: বৃষ্টিভেজা রাস্তায় পিছলে গেল অ্যাম্বুল্যান্স, মুহূর্তে বলি ৪,ভয়াবহ দৃশ্য ভিডিয়োবন্দি

মুখ খুলেছেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধীও (Rahul Gandhi)। রাহুল বলেন, “সংবাদপত্র চালানোর মতো মহৎ কাজ আর বেআইনি বার চালানোর মতো কাজ নিশ্চয়ই এক জিনিস না। এটা মানত হবে, যে এই বিষয়ে কিছুই জানতেন না তিনি, বেআইনি লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে তাঁর প্রভাব ছাড়াই!” এভাবেই নাম না করে স্মৃতিকে কটাক্ষ করেন কংগ্রেস শীর্ষ নেতা। “আমরা জানতে চাই, কার মদতে এই দুর্নীতি,” যোগ করেন রাহুল।

এই বিষয়ে শনিবার মুখ খুলেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। তাঁর মেয়ের বিরুদ্ধে কংগ্রেস কুৎসা করছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। স্মৃতি বলেন, “আমার ১৮ বছরের মেয়ের বিরুদ্ধে কুৎসা করা হচ্ছে। ওঁর একমাত্র দোষ ওঁর মা রাহুল ও সোনিয়া গান্ধীর ৫ হাজার কোটি টাকার দুর্নীতি নিয়ে মুখ খুলেছে। আমি দাবি করছি, ওঁরা আবার হারবেন। আদালতে ও সাধারণ মানুষের সামনে অপদস্থ হতে হবে ওঁদের।”

আরও পড়ুন: রিসর্টে শিশুদের আটকে রেখে ‘মধুচক্র’! কাঠগড়ায় প্রভাবশালী বিজেপি নেতা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest