Justice B V Nagarathna: Notes Ban Order "Unlawful", "Vitiated": Dissenting Supreme Court Judge

Justice B V Nagarathna : ‘নোটবন্দি বেআইনি’, বেসুরো নাগরত্নাই হতে পারেন দেশের প্রথম মহিলা প্রধান বিচারপতি

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

মোদী সরকারের নোটবন্দির সিদ্ধান্তে ভুল ছিল না। সোমবারই এই রায় দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট। তবে, পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চে সকলে এই সিদ্ধান্তে সহ মত হহনি। সুপ্রিম কোর্টের পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চের অন্যতম সদস্য বিচারপতি বি ভি নাগরত্নার (Justice B V Nagarathna) মত পুরো উল্টো।

যে যে লক্ষ্য সামনে রেখে ২০১৬ সালে নোটবন্দি করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকার, সেগুলির অধিকাংশই পূরণ করা যায়নি বলে জানিয়েছেন নাগরত্না। তবে একই সঙ্গে বিচারপতি জানিয়েছেন, এত দিন পরে এই সিদ্ধান্ত স্থগিত করার নির্দেশ দিতে পারে না আদালত। তাতে কোনও সুরাহা হবে না বলেও জানিয়েছেন তিনি। এ প্রসঙ্গে নাগরত্না বলেন, “কালো টাকা উদ্ধার, সন্ত্রাসবাদে কালো টাকার ব্যবহার ইত্যাদি বন্ধের জন্যই নোটবন্দির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু আইনগত দিক থেকে দেখতে গেলে এই সিদ্ধান্ত অবৈধ। আদালত কোনও সিদ্ধান্তের লক্ষ্যের দিকটি মাথায় রেখে নয়, আইনগত দিকটি পর্যালোচনা করেই রায় দিয়ে থাকে।”

আরও পড়ুন: Rahul Gandhi: দিল্লির হাড়কাঁপানো ঠান্ডায় শুধু T Shirt! শীত করছে না? রাহুলের জবাব…

বিচারপতির পর্যবেক্ষণ, আরবিআই-এর আইন অনুযায়ী নোটবন্দির সিদ্ধান্ত নিয়ে রিজার্ভ ব্যাংকেরই সরকারকে পরামর্শ দেওয়ার কথা। কিন্তু সরকারই ২০১৬ সালের ৭ নভেম্বর চিঠি দিয়ে রিজার্ভ ব্যাংককে নোটবন্দির বিষয়ে জানায়। বিচারপতি নাগারত্ন পর্যবেক্ষণ, নোট বাতিল সংসদীয় প্রক্রিয়ায় হওয়া উচিত ছিল, একা কেন্দ্রের সিদ্ধান্তে নয়। সেই সঙ্গে যোগ করেন, এটা “ক্ষমতার প্রয়োগ, আইনের পরিপন্থী। তাই বেআইনি।”

কে এই বিচারপতি বি ভি নাগরত্না?

বিচারপতি বি ভি নাগরত্নার (Justice B V Nagarathna) বাবা বিচারপতি ই এস ভেঙ্কটারমিয়া (E S Venkataramiah) ছিলেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি। আইনজীবী হিসেবে কেরিয়ার শুরু করা বিচারপতি নাগারত্না কর্নাটক হাইকোর্টের বিচারপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০২১ সালের অগাস্টে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি হিসেবে শপথ নেন তিনি। ২০২৭ সালে দেশের প্রথম মহিলা প্রধান বিচারপতি হতে চলেছেন বিচারপতি বি ভি নাগরত্নার (Justice B V Nagarathna)। তবে, দায়িত্ব নিলেও মাত্র ৩৬ দিন পরেই অবসর নিতে হবে তাঁকে। তেমন হলে দেশের তৃতীয় স্বল্প সময়ের প্রধান বিচারপতি হবেন তিনি। নাগরত্নাকে স্পষ্টবক্তা হিসাবেই চেনে আইনজীবী মহল। আগেও নানা মামলার রায়ে নিজের কঠোর এবং দৃঢ়চেতা মানসিকতার পরিচয় দিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন: Delhi Crime: স্কুটিতে বেপরোয়া ধাক্কা, তরুণীকে ছেঁচড়ে ১২ কিলোমিটার নিয়ে গেল ঘাতক গাড়ি

 

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest