রাজ্যে রাজ্যে কমছে শক্তি, এবার রাজ্যসভাতেও ধাক্কা খেতে চলেছে বিজেপি

আগামী বছরও বিজেপির রাজ্যসভার আসনসংখ্যা ৯০-এর আশেপাশেই ঘোরাফেরা করবে। অর্থাৎ একক সংখ্যাগরিষ্ঠ দল হওয়ার স্বপ্ন আপাতত জলাঞ্জলি দিতে হবে গেরুয়া শিবিরকে।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

লোকসভায় দলের হাতে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা। রাজ্যসভাতেও একক বৃহত্তম দল বিজেপি (BJP)। জোট হিসেবে এনডিএ সংখ্যাগরিষ্ঠতার বেশ কাছাকাছি ছিল এতদিন। কিন্তু গেরুয়া শিবিরের বহুদিনের স্বপ্ন লোকসভার মতো  রাজ্যসভাতেও  একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করা। নিদেনপক্ষে এনডিএ (NDA) জোট যাতে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়, তা নিশ্চিত করা।

কিন্তু এই মুহূর্তে পরিস্থিতি যা, তাতে রাজ্যসভাতেও আগামী অন্তত এক বছর খুব একটা সুবিধা করে উঠতে পারবে না গেরুয়া শিবির। আসন বাড়া তো দূরের কথা, নিজেদের বর্তমান শক্তি ধরে রাখাটাই চ্যালেঞ্জ গেরুয়া শিবিরের কাছে। কারণ, অনেক রাজ্যেই আগের তুলনায় শক্তি কমেছে বিরোধী শিবিরের।

আরও পড়ুন: আমি দিদির সৈনিক, ভুল শুধরে নিতে চাই,’সোনালির পর এবার তৃণমূলে ফিরতে চান সরলা মুর্মু

রাজ্যসভায় বিজেপি সবচেয়ে বড় ধাক্কা খেতে চলেছে অন্ধ্রপ্রদেশ, রাজস্থান (Rajasthan) এবং ছত্তিশগড়ে। এই মুহূর্তে রাজ্যসভায় বিজেপির সদস্য সংখ্যা ৯৩। যা মেজরিটি মার্কের থেকে অনেকটাই কম। অঙ্ক বলছে, আগামী দিনে গেরুয়া শিবিরের আসন সংখ্যা আরও কমবে। আসন কমবে তাঁদের জোটসঙ্গী এআইএডিএমকে এবং জেডিইউয়েরও। আগামী বছর তিন দফায় রাজ্যসভার (Rajya Sabha) ৭১ জন সদস্যের মেয়াদ শেষ হবে।

অর্থাৎ নতুন করে ৭১ জন সদস্য নির্বাচিত হবেন। যা কিনা জাতীয় রাজনীতির গতিপ্রকৃতি বদলে দিতে পারে। আপাতত অন্ধ্রপ্রদেশে বিজেপির রাজ্যসভা সদস্যের সংখ্যা ৪। এর মধ্যে ৩টির মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী বছর। আর এই তিনটির একটিও জেতার জায়গায় নেই গেরুয়া শিবির।

রাজস্থানেও বিজেপির দখলে থাকা ৪টি আসন ফাঁকা হচ্ছে আগামী বছর জুলাই মাসে। এখনকার রাজনৈতিক পরিস্থিতি বজায় থাকলে এর মধ্যে ৩টি আসন জিততে পারে কংগ্রেস (Congress)। ছত্তিশগড়েও একটি আসন কমতে পারে বিজেপির। তবে গেরুয়া শিবিরের জন্য সুখবর, অসম এবং হিমাচলে একটি করে আসন বাড়তে পারে তাঁদের।

পাঞ্জাবে বর্তমান যা পরিস্থিতি তাতে আগামী বছর একটি আসন কমছে গেরুয়া শিবিরের। তামিলনাড়ুতে বিজেপির জোটসঙ্গী এআইএডিএমকের (AIADMK) দখলে থাকা দুটি আসন ফাঁকা হচ্ছে আগামী বছর। এর মধ্যে একটি দখল করবে ডিএমকে। এখানেই গুরুত্বপূর্ণ হয়ে দাঁড়ায় উত্তরপ্রদেশ।

আগামী বছর উত্তরপ্রদেশের ১১ জন সাংসদের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। এর মধ্যে বিজেপির দখলে থাকা ৫টি আসনে ভোট হবে জুলাইয়ে। ঘটনাচক্রে জুলাইয়ের আগেই ভোট হয়ে যাওয়ার কথা যোগীরাজ্যে। যদি, বিজেপি ২০১৭ সালের মতো বিরাট ব্যবধানে উত্তরপ্রদেশ না জিততে পারে, তাহলে রাজ্যসভায় বিজেপির আসন সংখ্যা আরও কমতে পারে।

সার্বিকভাবে একটি জিনিস স্পষ্ট। আগামী বছরও বিজেপির রাজ্যসভার আসনসংখ্যা ৯০-এর আশেপাশেই ঘোরাফেরা করবে। অর্থাৎ একক সংখ্যাগরিষ্ঠ দল হওয়ার স্বপ্ন আপাতত জলাঞ্জলি দিতে হবে গেরুয়া শিবিরকে। যদি না বড় কোনও ‘ঘোড়া কেনাবেচার’ মাধ্যমে এই সমীকরণ পরিবর্তন হয়।

আরও পড়ুন: কলকাতায় সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ যাদবপুর-বেহালায় : সমীক্ষা রিপোর্ট

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest