Online food delivery services may attract GST soon. Check details

Online Food: বাড়তে চলেছে সুইগি, জোমাটো থেকে খাবার আনানোর খরচ! লাগু হতে পারে GST

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

এবার থেকে সুইগি (Swiggy) ও জোমাটোর (Zomato) মতো অ্যাপ-নির্ভর ই-কমার্স অপারেটর বা ECOগুলির খাবার ডেলিভারি পরিষেবার সঙ্গেও যুক্ত হতে চলেছে জিএসটি (GST)। আগামী শুক্রবার জিএসটি কাউন্সিলের একটি বৈঠকেই এব্যাপারে সিদ্ধান্ত হতে চলেছে।

অর্থমন্ত্রক সূত্রে খবর, এবার থেকে সুইগি, জোম্যাটো, ফুডপান্ডার মতো অনলাইন খাবার ডেলিভারি সংস্থাগুলিকে রেস্তোরাঁ পরিষেবা হিসেবে গণ্য করা হবে। যার ফলে সিজিএসটি আইনের সেকশন ৯ (৫) ধারায় এবার থেকে ঐ সমস্ত সংস্থার উপর কর ধার্য করা হবে। বলা বাহুল্য, এর প্রভাব এসে পড়তে পারে গ্রাহকদের পকেটেও। বর্তমানে কেন্দ্রীয় সরকারকে জিএসটি দিতে হয় রেস্তোরাঁগুলিকে। এতদিন তা থেকে অনলাইন খাবার ডেলিভারি সংস্থাগুলিকে বিরত রাখা হয়েছিল। তবে এবার জিএসটি কাউন্সিলের ৪৫ তম বৈঠকে তা সিদ্ধান্ত নিতে চলেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন।

আরও পড়ুন: TMC in Tripura: ফের সংঘাত, ১৫ তারিখ আগরতলায় অভিষেকের পদযাত্রার অনুমতি দিল না ত্রিপুরা পুলিশ

তবে এক্ষেত্রে বেশকিছু শর্ত রাখতে পারে কাউন্সিলের প্যানেল। জানা গিয়েছে, যে সমস্ত রেস্তোরাঁর প্রতিদিনের ট্যারিফ সাড়ে সাত হাজার টাকা বা বেশি তাদের ক্ষেত্রে কর ছাড় দেওয়া হতে পারে। সব ঠিক থাকলে ২০২২ এর পয়লা জানুয়ারি থেকেই লাগু হবে নয়া নিয়ম। তবে কমিটি জানিয়েছে এ ব্যাপারে সফটওয়্যারে প্রয়োজনীয় পরিবর্তন আনতে অনলাইন খাবার ডেলিভারি সংস্থাগুলিকে যথেষ্ট সময় দেওয়া হবে।

সংশ্লিষ্ট কমিটি জানায়, অতিমারি আবহে অনলাইনে খাবার অর্ডারের প্রবণতা বেড়েছে। যদিও তার ফলে সেই হারে কর বাবদ কোনও মুনাফা পায়নি সরকার। এ ব্যাপারে দীর্ঘদিন দাবি জানিয়ে আসছিল বেশ কয়েকটি রাজ্যও। তবে এবার সেই নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে কেন্দ্র।

আরও পড়ুন: লোকসভা-রাজ্যসভা টিভি একত্রিত করে ‘সংসদ টিভি’-র উদ্বোধন প্রধানমন্ত্রীর, সংযুক্তিকরণে হতে পারে কর্মী ছাঁটাই

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest