করোনা আবহে উত্তরপ্রদেশের নদীগুলিতে ভাসছে দেহ। এই দেহগুলির মধ্যে একটা বড় অংশ কোভিডে মৃত্যু হওয়া ব্যক্তিদের। এই নিয়ে গত বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরেই বিরোধীদের তোপের মুখে পড়তে হয়েছে উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকারকে। এই আবহে এবার এক ভিডিয়ো ভাইরাল হল, যাতে দেখা যাচ্ছে, উত্তরপ্রদেশের রাপ্তি নদীতে এক করোনা রোগীর দেহ ফলছেন পিপিই কিট পরে থাকা ব্যক্তি। ঘটনাটি উত্তরপ্রদেশের বলরামপুর জেলায় ঘটেছে। এই ভিডিয়ো ভাইরাল হলেই আরও অস্বস্তি বেড়েছে যোগী সরকারের।

আরও পড়ুন : আর মিলবে না আধার কার্ডের রি-প্রিন্ট পরিষেবা! জানিয়ে দিল UIDAI

জানা গিয়েছে, ভিডিওর ঘটনাটি গত শুক্রবার যোগীরাজ্যের বলরামপুরে ঘটেছে। ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে দুই ব্যক্তিকে। তাঁদের মধ্যে একজন পিপিই কিট পরিহিত। দু’জনে মিলে একটি মৃতদেহ রাপ্তী নদীতে ফেলার চেষ্টা করছেন। এক পথচারী ওই ভিডিওটি ক্যামেরাবন্দি করার পরই তা ছড়িয়ে পড়ে নেট দুনিয়ায়। প্রশ্ন ওঠে, লুকিয়ে নদীতে ফেলার চেষ্টা করা হচ্ছে যে মৃতদেহটি, সেটি কি কোনও করোনা আক্রান্তের?

এভাবে দিনের বেলায় এহেন কাজ কেউ কী করে করতে পার, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। প্রশ্ন উঠেছে প্রশাসনের ব্যর্থতা নিয়ে। এদিকে এই ঘটনা ভাইরাল হতেই ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে সঞ্জয় শুক্লা নামক এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মহামারী আইনের অধীনে মামলা দায়ের হয়েছে। অভিযোগ, এই ঘটনার সঙ্গে এপি মিশ্র নামক এক চিকিৎসকও জড়িত।

বলরামপুরের মুখ্য মেডিক্যাল অফিসার ভিবি সিং মেনে নিয়েছেন, ওই মৃতদেহ একজনো করোনা রোগীরই। তিনি জানিয়েছেন, যাঁরা দেহটি নদীতে ফেলার চেষ্টা করছিলেন তাঁর ওই ব্যক্তির আত্মীয়। ওই দু’জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

ভিবি সিং জানিয়েছেন, ‘‘জানা গিয়েছে ওই করোনা রোগীকে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছিল গত ২৫ মে। তিনদিন পরে ২৮ মে তাঁর মৃত্যু হয়। কোভিড প্রোটোকল মেনে তাঁর মৃতদেহ তুলে দেওয়া হয় পরিবার পরিজনের হাতে। কিন্তু প্রাথমিক তদন্তের পর জানা গিয়েছে, ওই ব্যক্তির মৃতদেহ নদীতে ছুঁড়ে ফেলা হয়েছে। আমরা ইতিমধ্যেই অভিযোগ দায়ের করেছি। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হবে।’’

আরও পড়ুন : ইউহানের গবেষণাগারেই তৈরি হয়েছে করোনা! প্রমাণ মিলেছে বলে দাবি বিজ্ঞানীদের

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *