Subramanian Swamy removed BJP’s name from his Twitter bio

জাতীয় কর্মসমিতি থেকে বাদ পড়তেই টুইটার বায়োতে বিজেপি-র নাম মুছলেন Subramanian Swamy

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

বিজেপি-র সঙ্গে দূরত্ব আরও বাড়ল সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর। এ বার নিজের টুইটার হ্যান্ডলের বায়ো থেকে বিজেপি-র নাম সরিয়ে দিলেন তিনি। বিজেপি-র জাতীয় কার্যসমিতির কমিটি থেকে বৃহস্পতিবারই বাদ যায় সুব্রহ্মণ্যমের নাম। তার পরই বিজেপি-র নাম মুছে গেল তাঁর টুইটার থেকে।

নতুন টুইটার বায়োতে স্বামী তাঁর নিজের পরিচয় দিয়েছেন কেবল মাত্র রাজ্যসভার সাংসদ হিসাবে। কোন দল থেকে তিনি নির্বাচিত, তা আগে লেখা থাকলও এখন আর নেই। তাঁর টুইটার বায়োতে লেখা রয়েছে, ‘রাজ্যসভা এমপি, প্রাক্তন ক্যাবিনেট মন্ত্রী, হার্ভার্ড থেকে অর্থনীতিতে পিএইচডি, অধ্যাপক, যেমন ভাল ব্যবহার পাব তেমন ফিরিয়ে দেব।’

শুরু থেকেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর কট্টর সমালোচক হিসাবে পরিচিত স্বামী। মোদীর অর্থনীতি পরিচালনা নিয়ে বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন মন্তব্য করেছেন তিনি। তাঁর বিভিন্ন মন্তব্য নিয়ে বিতর্কও কম হয়নি। কিন্তু জাতীয় কর্মসমিতি থেকে বাদ যেতেই ফের তাল কাটল তাঁর। নয়া কৃষি আইন এবং উত্তরপ্রদেশের লখিমপুর খেরিতে হিংসার ঘটনা নিয়ে কেন্দ্রের সমালোচনা করেছিলেন মানেকা এবং বরুণ গান্ধী। তাঁরাও বাদ গিয়েছেন বৃহস্পতিবার গঠিত বিজেপি-র জাতীয় কর্মসমিতি থেকে। তিন জনের নাম ছাড়াও এ বার জাতীয় কর্মসমিতি থেকে বাদ পড়েছেন ইন্দ্রজিৎ সিংহ, প্রহ্লাদ পটেল, সুরেশ প্রভু, এসএস আহলুওয়ালির মতো বিজেপির অনেক প্রবীণ নেতা-মন্ত্রীও।

আসলে দু’বার মন্ত্রিসভার দায়িত্ব পেলেও মোদীর নতুন মন্ত্রিসভায় ঠাঁই হয়নি তাঁর। সমালোচকদের দাবি, সেই কারণেই তিনি এভাবে সরব কেন্দ্রের বিরুদ্ধে। এর আগেও পছন্দের মন্ত্রক না পেয়ে সরকারের সমালোচনা করতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। ফলে দলের ৮০ সদস্যের কার্যসমিতির কমিটির তালিকা থেকে তাঁর বাদ পড়া খুব আশ্চর্য হচ্ছে না ওয়াকিবহাল মহল।

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest