The Prime Minister was targeted by militants on Republic Day at Lalkella and India Gate

প্রজাতন্ত্র দিবসে জঙ্গি নিশানায় প্রধানমন্ত্রী, হামলার ছক লালকেল্লা ও ইন্ডিয়া গেটে

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

আগামী ২৬ জানুয়ারি প্রজাতন্ত্র দিবসে দিল্লিতে হামলা চালাতে পারে জঙ্গিরা। গোয়েন্দা সূত্রে দিল্লি পুলিশকে এ ধরনের হামলা সম্পর্কে সতর্কবার্তা দেওযা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। গোয়েন্দা তথ্য অনুযায়ী, প্রজাতন্ত্র দিবসে জঙ্গিরা কয়েকজন নেতা সহ কিছু ভিআইপি-কে নিশানা করতে পারে। ইন্টেলিজেন্স ব্যুরো (আইবি)-র তথ্য অনুযায়ী, নিষিদ্ধ খালিস্তানি সংগঠন শিখ ফর জাস্টিস (Sikh for Justice) প্রজাতন্ত্র দিবলে জঙ্গি হামলার ছক কষেছে। তারা গাড়িতে বিস্ফোরক ভরে ইন্ডিয়া গেট ও লালকেল্লার আশেপাশের এলাকায় হামলা চালাতে পারে। গোয়েন্দা তথ্যে বলা হয়েছে., শিখ ফর জাস্টিস গত বছরের মতো এবারও লালকেল্লায় ধর্মীয় পতাকা ওড়ানোর ঘটনার পুনরাবৃত্তি করতে পারে।

এ বার প্রজাতন্ত্র দিবসে প্রধান অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে মধ্য এশিয়ার পাঁচটি দেশ— কাজাখস্তান, তাজিকিস্তান, তুর্কমেনিস্তান, কিরঘিজস্তান এবং উজবেকিস্তানের শীর্ষ নেতাদের। বিদেশি অতিথিরাও জঙ্গিদের নিশানায় রয়েছেন বলে গোয়েন্দা সূত্রে খবর। জঙ্গিরা পাকিস্তান থেকে বিস্ফোরক ভারতে নিয়ে আসছে বলে অনুমান করা হচ্ছে। সম্প্রতি গাজিপুর মাণ্ডিতে যে আইইডি মিলেছিল, সেটাও এই কারণেই বলে সন্দেহ করছেন গোয়েন্দা অফিসাররা।

আরও পড়ুন: Republic Day 2022: প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে রাজধানী জুড়ে আঁটোসাঁটো নিরাপত্তা, প্যারেড মাতাতে তৈরি রাফাল-জাগুয়ার-P8I

গাজিপুর ফুল মাণ্ডিতে গত সপ্তাহেই আরডিএক্স ও অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট ভরা আইইডি মিলেছিল। ব্যাগ ভর্তি সেই বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়। অন্যদিকে, ওড়িশার স্বাভিমানের কাছের জঙ্গলে তল্লাশি চালিয়ে প্রচুর বিস্ফোরক উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, অন্ধ্রপ্রদেশ সীমানার জোদাম্বা থানার ওই এলাকা থেকে পাওয়া গিয়েছে প্রচুর বিস্ফোরক, ওষুধ ও সাজ-সরঞ্জাম। শ্রীনগরেও শুক্রবার একটি প্রেসার কুকার বোমা খুঁজে পেয়ে নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে। আন্তর্জাতিক সীমান্তের কাছে অটারি থেকে উদ্ধার হয়েছে পাঁচ কিলোগ্রাম বিস্ফোরক ও এক লক্ষ টাকা।

নিরাপত্তার জন্য বিশেষ প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত কমান্ডো নামাচ্ছে দিল্লি। কাশ্মীর বা মাওবাদী অধ্যুষিত অঞ্চলে যাঁরা জঙ্গি দমন অভিযানে সাফল্য পেয়েছেন, এমন সিআরপি কমান্ডো বাহিনীকে নিরাপত্তার জন্য মোতায়েন করা হবে বলে জানা গিয়েছে। আজ থেকেই দিল্লিকে অ্যান্টি-ড্রোন এলাকা হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: অরুণাচলে ভারতীয় কিশোরকে অপহরণ চিন সেনার, দাবি সাংসদের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest