আজ ফোকাস-এ

মোদীর সঙ্গে বৈঠকের পরই নাড্ডার বাসভবনে যোগী, গদি হারানোর ভয়েই কি লাগাতার বৈঠক?

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

আগামী বছরের বিধানসভা নির্বাচনের আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে দেখা করলেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যানাথ। প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে দীর্ঘ এক ঘণ্টা ধরে বৈঠক চলে। এবার যোগীর কপালে খারাবি আছে। ইতিমধ্যেই বলতে শুরু করেছেন অনেকেই। পঞ্চায়েত ভোটের ফল দেখেই সিঁদুরে মেঘ দেখছে বিজেপি।

২০২২ সালেই উত্তর প্রদেশে বিধানসভা নির্বাচন। কার্যত এক বছর আগে থেকেই নির্বাচনের তোড়জোড় শুরু হয়েছে। সম্প্রতি জল্পনা শুরু হয়েছিল যে করোনা মোকাবিলায় যোগী প্রশাসনের ব্যর্থতার জেরে আগামী বছরে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী নাও করা যেতে পারে যোগী আদিত্যনাথকে। তবে দলের তরফে এই জল্পনাকে উড়িয়ে দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন: দিলীপ ঘোষের বৈঠকে গরহাজির বনগাঁর সাংসদ ও ৩ বিধায়ক, তবে কি অন্তর্দ্বন্দ্ব বাড়ছে অন্তর্দ্বন্দ্ব?

এ দিন সকালে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক শেষে যোগী আদিত্যনাথ একটি ছবি টুইট করে লেখেন, “আজ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করা এবং ওনার থেকে পরামর্শ নেওয়ার সুযোগ মিলেছে। সারাদিনের ব্যস্ততার মাঝেও প্রধানমন্ত্রী সময় বের করে বৈঠক করার জন্য আমি অসংখ্য ধন্যবাদ জানাচ্ছি।”

জানা গিয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পরই যোগী আদিত্যনাথ বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডার বাসভবনেও গিয়েছেন উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। এর আগে গতকাল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গেও বৈঠক করেন যোগী আদিত্যনাথ। দীর্ঘ ৯০ মিনিট ধরে চলা বৈঠকে আগামী বছরের বিধানসভা নির্বাচনের রোড ম্যাপ নিয়েই আলোচনা করা হয়।

উল্লেখ্য, উত্তর প্রদেশে করোনাকালে গঙ্গায় দেহ ভেসে আসাকে কেন্দ্র করে তুমুল বিতর্ক শুরু হয়। এরপরই বিজেপির ভাবমূর্তি নষ্ট হওয়ার প্রসঙ্গ ওঠে। এ দিকে, সদ্য কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া জীতিন প্রসাদও আসন্ন নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবেন বলে জানা গিয়েছে। মূলত উত্তর প্রদেশের ব্রাহ্মণ ভোট বিজেপির ঝুলিতে ভরার দায়িত্ব সামলাবেন তিনি।

একদিকে করোনা মোকাবিলায় ব্যর্থতা,  অন্যদিকে নতুনদের হাতে দায়িত্ব তুলে দেওয়ার মাঝে দলের শীর্ষ নেতৃত্বদের সঙ্গে যোগী আদিত্যনাথের বৈঠক অত্যন্ত ইঙ্গিতবাহী বলেই মনে করছেন ।

আরও পড়ুন: শোনো কমরেড শোনো…এই সিপিমের ইতিকথা !

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest