কাশ্মীরের পর এবার ভারত-চিন সীমান্ত বিরোধে মধ্যস্থতার প্রস্তাব ট্রাম্পের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ওয়েব ডেস্ক: ভারত এবং চিনের মধ্যে সীমান্ত বিরোধ মেটাতে মধ্যস্থতার প্রস্তাব দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বুধবার ট্যুইট করে এমনই জানিয়েছেন ট্রাম্প স্বয়ং।লাদাখে লালফৌজের আগ্রাসনের জেরে ভারত এবং চিনের মধ্যে যখন উত্তেজনার ক্রমশ বাড়ছে তখন ডনের তরফে মধ্যস্থতার এই প্রস্তাব এল।

আরও পড়ুন: ভেঙে দু’টুকরো ভারত মহাসাগরে তলদেশের টেকটনিক প্লেট, অদূর ভবিষ্যতে ভয়াবহ ভূমিকম্পের আশঙ্কা

লাদাখে দু ’পক্ষই সৈন্য সংখ্যা দ্রুত বাড়াচ্ছে। তৈরী হচ্ছে সঙ্ঘাতের ভরকেন্দ্রে। সে দিকে যে উদ্বিগ্ন হয়ে তাকিয়ে রয়েছে গোটা বিশ্ব। বুধবার তা আরও স্পষ্ট হয়ে গেল প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বার্তায়।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট লিখেছেন, ‘ভারত এবং চিনের মধ্যে বর্তমানে ক্রমবর্ধমান সীমান্ত বিরোধের নিষ্পত্তি করতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকা পালনে প্রস্তুত ও আগ্রহী। এই ক্ষমতাও আমাদের আছে। এই বিষয়টি ভারত এবং চিন উভয় দেশকেই আমরা জানিয়েছি। ধন্যবাদ।’

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এ দিন টুইট করেছেন ভারত-চিন সীমান্তের পরিস্থিতির প্রেক্ষিতে। তিনি লিখেছেন, ‘‘আমরা ভারত ও চিন উভয়কেই জানিয়েছি, তাদের সীমান্তে এখন যে সমস্যা চলছে, তার মধ্যস্থতা ও মিমাংসা করতে আমেরিকা প্রস্তুত, ইচ্ছুক এবং সক্ষম।’’

মধ্যস্থতার প্রস্তাব অবশ্য ট্রাম্পের তরফ থেকে এই প্রথম নয়। কাশ্মীর ইস্যু নিয়েও একাধিক বার মধ্যস্থতার ইচ্ছা প্রকাশ করেছে আমেরিকা। দিল্লি প্রতি বারই জানিয়েছে, কাশ্মীরের বিষয়ে ভারত কোনও তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ বরদাস্ত করবে না। ডোকলামে যখন চিনের মুখোমুখি হয়েছিল ভারত, তখনও কারও মধ্যস্থতার অপেক্ষায় ভারত ছিল না। তবে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের এ বারের টুইট প্রসঙ্গে নয়াদিল্লি এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া দেয়নি।

আরও পড়ুন: যুদ্ধের জন্য তৈরি হও’, লালফৌজকে নির্দেশ আগ্রাসী চিনা প্রেসিডেন্ট জিনপিংয়ের

Gmail 3
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest