হঠাৎ পদত্যাগ জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবের, ক্ষমা চাইলেন দেশবাসীর কাছে

গত কয়েকদিনে দু’বার হাসপাতালে গিয়েছিলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। তখনই অনেকের সন্দেহ হয়েছিল, প্রধানমন্ত্রী কি অসুস্থ? কিন্তু সরকারিভাবে আবের অসুস্থতার কথা উড়িয়ে দেওয়া হয়। বলা হয়, তিনি রুটিন চেক আপের জন্য হাসপাতালে গিয়েছিলেন। এরপর প্রধানমন্ত্রী নিজেই আচমকা ঘোষণা করলেন, তাঁর শরীর ভেঙে পড়েছে। তিনি আর প্রধানমন্ত্রীর কাজ চালাতে পারছেন না। তাই শীঘ্রই ইস্তফা দেবেন।

বেশ কয়েক বছর ধরে আলসারেটিভ কোলাইটিসে ভুগছেন শিনজো আবে। এর ফলে ছোট ছোট আলসার পুরো কোলনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। কোলনের ভিতর ঘা হয়, যার কারণে পেটের ভিতর প্রদাহজনিত যন্ত্রণাদায়ক সমস্যা দেখা দেয়। তাঁর শারীরিক অবস্থা নিয়ে নানা জল্পনার মধ্যেই শুক্রবার দুপুরে পদত্যাগের ঘোষণা করেন ৬৫ বছরের শিনজো আবে। তিনি বলেন, ‘‘দেশবাসীর জন্য সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে না পারলে আমার প্রধানমন্ত্রী থাকা চলে না। তাই মেয়াদ শেষ হতে এখনও একবছর বাকি থাকলেও, পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’’করোনার প্রকোপে এই মুহূর্তে দেশে মহামারি পরিস্থিতি দেখা দিয়েছে, সেই অবস্থায় নিজের কর্তব্য পালন না করতে পারায় দেশবাসীর কাছে ক্ষমাও চান তিনি।

আরও পড়ুন: রাজনৈতিক বিজ্ঞাপনে সবচেয়ে বেশি খরচ করেছে বিজেপি, ফাঁস করল ফেসবুক

জাপানের সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদি প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। তাঁর আমলেই বিশ্বের তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতি হিসেবে জাপানের উত্থান ঘটে। আগামী বছর সেপ্টেম্বরে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল তাঁর। তার আগেই পদত্যাগ করলেন। তবে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেশের পার্লামেন্ট থেকে যত দিন পর্যন্ত নতুন কেউ নির্বাচিত না হচ্ছেন, তত দিন তিনিই দায়িত্ব সামলাবেন।

শিনজো আবের উত্তরাধিকারী হিসেবে এই মুহূর্তে যে নামগুলি উঠে আসছে, তার মধ্যে অন্যতম হলেন দেশের অর্থমন্ত্রী তারো আসো এবং মন্ত্রিসভার মুখ্যসচিব ইয়োশিহিদে সুগা। তবে এ নিয়ে নিজে থেকে কোনও মন্তব্য করতে চাননি আবে।

আরও পড়ুন: মারা যাওয়ার ভয়ে ৮০ বছর চুল কাটেননি! ভাইরাল ৯২ বছরের বৃদ্ধের সাড়ে ১৬ ফুট লম্বা জটা