অবশেষে মিলল জয়, হিজাব পরার অনুমতি পেলেন দক্ষিণ আফ্রিকার সেনারা

যদিও এই অবস্থান বদল কাকতালীয় নয়। এর নেপথ্যে রয়েছেন মেজর ফতিমা ইসাক।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

সেনাবাহিনীতে মুসলিম নারী সদস্যদের হিজাব পরার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা। দক্ষিণ আফ্রিকা সেনবাহিনীর একজন মুখপাত্র গতকাল বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) এ কথা জানিয়েছেন। সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকার সেনাবাহিনী তাদের পোশাক নীতিতে পরিবর্তন এনেছে। যার ফলে একজন মুসলিম নারী ইউনিফর্ম হিসেবে হিজাব পরতে আর কোনও বাধা থাকল না ।

সেনাবাহিনীর উর্দির সঙ্গে হিজাব পরার ‘অপরাধে’ পোশাক বিধি ভঙ্গের অভিযোগ উঠেছিল এক মুসলিম ধর্মাবলম্বী মহিলার বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ২০১৮-র জুনের। দক্ষিণ আফ্রিকার ওই ঘটনায় মহিলাটি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ অমান্য করে হিজাব খুলে ফেলতে অস্বীকার করায় জল গড়ায় আদালত পর্যন্ত। যদিও সেনাবাহিনীতে কর্মরত মেজর ফতিমা ইসাক নামে ওই মহিলার বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগই খারিজ হয়ে যায় আদালতে। সেই রায়টি এসেছিল গত বছর জানুয়ারিতে। যার এক বছর গড়াতে না গড়াতে গোটা বিতর্কে ইতি টেনে তাদের পোশাক বিধিতেই বদল আনল সে দেশের সেনাবাহিনী। জানাল, বাহিনীর পোশাকের সঙ্গেই এ বার থেকে হিজাব পরতে পারবেন সেনায় কর্মরত সব মুসলিম মহিলা।

আরও পড়ুন: শিরায় শিরায় বেড়ে উঠছে Magic Mushroom! মৃত্যু মুখে যুবক

যদিও এই অবস্থান বদল কাকতালীয় নয়। এর নেপথ্যেও রয়েছেন ফতিমা। গত জানুয়ারিতে সেনাবাহিনীর বিশেষ আদালতের রায়ে হিজাব পরায় ছাড় পেয়েছিলেন শুধু তিনিই। আদালতের রায়ে বলা হয়েছিল, আঁটোসাঁটো ভাবে হিজাব পরতে পারবেন ফতিমা। তবে তাতে যেন তাঁর কান কোনও ভাবেই না-ঢেকে যায়। যদিও শুধু নিজের জন্য এই ছাড় পেয়ে খুশি হননি ফতিমা। তাঁর ধর্মের বাকি মহিলা সহকর্মীরা কেন বঞ্চিত হবেন, তা ভাবিয়ে তোলে তাঁকে। সময় নষ্ট না-করে ধর্মীয় পোশাকের ক্ষেত্রে জোর করে বিধিনিষেধ আরোপের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দক্ষিণ আফ্রিকার সাম্য আদালতের দ্বারস্থ হন তিনি।

যার জেরেই এ বার তাদের পোশাকবিধিতে বদল আনার কথা ঘোষণা করল সেনাবাহিনী। বৃহস্পতিবার ‘দ্য সাউথ আফ্রিকান ডিফেন্স ফোর্স’ (এসএএনডিএফ) জানিয়েছে, বাহিনীতে কর্মরত প্রত্যক মুসলিম মহিলাকেই কর্তব্যরত অবস্থায় বাহিনীর পোশাকের সঙ্গে হিজাব পরার অনুমতি দেওয়া হল। এই সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় আইনি সংশোধনী প্রক্রিয়াও করা হয়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুন: অতিমারী ও মন্দার ধাক্কায় দিশেহারা দেশ! পদত্যাগ করলেন ইটালির প্রধানমন্ত্রী

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest