‘বাইডেনই প্রেসিডেন্ট’ ঘোষণা হতেই মার্কিন সংসদে ট্রাম্প সমর্থকদের হামলা, নিহত ৪

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

২০২০ সালে হওয়া নির্বাচনে জনগণের দ্বারা ইলেক্টেড প্রেসিডেন্ট হয়েছেন ডেমোক্র্যাট নেতা জো বাইডেন। ইলেক্টোরাল কলেজ থেকে বৃহস্পতিবার নির্বাচনের জয়ের শংসাপত্র পেতে চলেছেন তিনি। কিন্তু এর আগেই বুধবার ট্রাম্প সমর্থকদের প্রতিবাদ-বিক্ষোভ-হামলায় অশান্ত হয়ে উঠল ক্যাপিটল হিল। কয়েক হাজার সমর্থক ট্রাম্পের সমর্থনে স্লোগান তুলে ক্যাপিটল বিল্ডিংয়ে জোর করে ঢুকে পড়ার চেষ্টা করলেন। যার জেরে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় ক্যাপিটল বিল্ডিং চত্বর।

বুধবার মার্কিন কংগ্রেসে জো বাইডেনের নির্বাচন প্রক্রিয়া চলছিল। তখন ক্যাপিটল ভবন (মার্কিন সংসদ)-এর বাইরে জমা হন ট্রাম্প সমর্থকরা। ভোটে কারচুপি হয়েছে বলে অভিযোগ জানিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তাঁরা। তাদের মধ্যে ছিল বেশ কয়েকটি চরমপন্থী সংগঠনও। কিছুক্ষণ পর পুলিশের ব্যারিকেড ভেঙে ক্যাপিটল বিল্ডিংয়ের ভিতরে ঢুকে পড়েন বিক্ষোভকারীরা। তাদের সামাল দিতে রীতিমতো বেগ পেতে হয় নিরাপত্তারক্ষীদের। বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ও পেপার স্প্রে ব্যবহার করেন পুলিশকর্মীরা।

আরও পড়ুন: বাড়ির বারান্দায় ভিজে কাপড় মেললেই এখন থেকে বিপদ! হবে মোটা অঙ্কের জরিমানা

ঘটনাস্থলেই এক মহিলার মৃত্যু হয়। পরে হাসপাতালে মৃত্যু হয় আরও তিনজনের। সংঘর্ষ চলাকালীন মার্কিন সংসদের নিম্নকক্ষ হাউজ অফ রিপ্রেজেন্টিটিভের সদস্যদের সেখান থেকে বার করে নিরাপদ স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়। মুলতুবি হয় অধিবেশন। মুলতুবি করতে হয় মার্কিন সংসদের উচ্চকক্ষ সেনেটের অধিবেশনও। সেনেটের সভাপতিত্ব করেন সেদেশের উপ-রাষ্ট্রপতি মাইক পেন্স। তাঁকেও নিরাপদ স্থানে নিয়ে যান নিরাপত্তারক্ষীরা। বাকি সদস্যদের গ্যাস মাস্ক পরতে বলা হয়। এই পরিস্থিতে বুধবার সন্ধ্যা থেকে ওয়াশিংটন ডিসিতে কার্ফু জারি করা হয়েছে।

বুধবারের ঘটনার জন্য ট্রাম্পের উসকানিমূলক মন্তব্যকেই দায়ী করছেন অনেকে। এদিন হোয়াইট হাউজের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা ভক্তদের উদ্দেশে এক ভাষণে ট্রাম্প বলেন, ‘ভোট চুরি করে আমাকে হারিয়ে দেওয়া হয়েছে।’ জনসভা থেকেই ট্রাম্প জানিয়ে দেন, “আমরা পিছু হটব না।” গত নভেম্বরে হারের পর থেকেই এই দাবি করে আসছেন ট্রাম্প। প্ররোচনামূলক বক্তব্য রাখায় ট্রাম্পের অ্যাকাউন্ট সাময়িক নিষ্ক্রিয় করেছে ফেসবুক, টুইটার ও ইন্সটাগ্রাম।

ক্যাপিটল বিল্ডিংয়ে হামলা চালানোর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন আমেরিকার ভাবী প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তিনি বলেন, “ক্যাপিটল বিল্ডিংয়ের ঘটনা আমেরিকার সত্যিকারের ছবি হতে পারে না। কিছু উগ্রপন্থা মনোভাবাপন্ন মানুষ এ কাজ করেছেন। এটা বিশৃঙ্খলা। আমাদের লক্ষ্য আইন মেনে চলা।”

আরও পড়ুন: কনেপক্ষের পাতে মাংস কম! বর ও কনেপক্ষের সংঘর্ষ প্রাণ গেল কাকার

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest