করোনার জের: ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত স্থগিত আইপিএল, বাতিল হয়ে গেল ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের বাকি দু’টি ম্যাচও

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

মুম্বই: করোনাভাইরাসের জেরে পিছিয়ে গেল ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগ। এর আগে কেন্দ্র ১৫ এপ্রিল অবধি ভিসার ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। সেই ফলেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ১৫ এপ্রিল অবধি মুলতুবি থাকবে আইপিএল। বিসিসিআই শুক্রবার এই কথা জানিয়েছে।

শনিবার মুম্বইয়ে ফ্র্যাঞ্চাইজি কর্তাদের সঙ্গে এ ব্যাপারে বিশদে আলোচনা হবে। শনিবারই রয়েছে  আইপিএল-এর গভর্নিং কাউন্সিলের বৈঠক। সেখানেই হয়তো সরকারি ভাবে জানিয়ে দেওয়া হবে এ বারের সংস্করণের সূচি থেকে যাবতীয় বিষয়। বোর্ড সচিব জয় শাহ জানিয়েছেন, ‘‘ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত আইপিএল স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’’ আইপিএল-এর সঙ্গে জড়িত সবাই যাতে সুস্থ, নিরাপদে থাকেন, সেই ব্যাপারে বিসিসিআই সদা সতর্ক। সবার কথা চিন্তা করেই আইপিএল পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন: করোনা-কাঁটায় কলকাতাতেও, স্কুল কার্যত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিল সাউথ পয়েন্ট

এ দিকে কেন্দ্রের তরফে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত বিদেশিদের ভিসা দেওয়া বন্ধ রাখা হয়েছে। এই সিদ্ধান্তের ফলে আইপিএল-এর বিদেশি ক্রিকেটাররা ওই দিনের আগে সংশ্লিষ্ট দলের সঙ্গে যোগ দিতে পারছেন না। করোনা আতঙ্কের পাশাপাশি বিদেশি ক্রিকেটারদের না থাকাটাকেও টুর্নামেন্ট পিছিয়ে দেওয়ার অন্যতম কারণ হিসাবে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এর আগে মহারাষ্ট্র সরকার জানিয়ে দিয়েছিল যে তারা মাঠে দর্শক আসতে অনুমতি দেবেন না। অন্যদিকে দিল্লি সরকার তো বলেই দিয়েছে আপাতত আইপিএল করতে দেওয়া হবে না। সেই পরিপ্রেক্ষিতে খুব বেশি বিকল্প ছিল না আয়োজকদের কাছে।

পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী ২৯ মার্চ থেকে আইপিএল শুরু হওয়ার কথা ছিল। টুর্নামেন্ট যেহেতু দু’সপ্তাহেরও বেশি দেরি করে শুরু হচ্ছে, তাই নির্ধারিত সময়ের মধ্যে আইপিএল শেষ করতে হলে একইদিনে দু’টি করে ম্যাচ (ডাবল হেডার)-এর সংখ্যা আরও বাড়বে। এর আগে ঘোষিত সূচি অনুযায়ী, ‘ডাবল হেডার’ হওয়ার কথা ছিল শুধুমাত্র রবিবার। পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে মনে করা হচ্ছে, সপ্তাহের অন্য দিনগুলোতেও ‘ডাবল হেডার’ হবে।টুর্নামেন্টের বল গড়ালেও, দর্শকহীন স্টেডিয়ামেই যে খেলা হবে, সেই ব্যাপারে আভাস দিয়েছে বোর্ড। টুর্নামেন্টের ত্রয়োদশ সংস্করণ নিয়ে এই সিদ্ধান্ত সম্পর্কে সব ফ্র্যাঞ্চাইজিকে জানানো হয়েছে বলেও উল্লেখ তাতে।

ভারত-দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের বাকি দু’টি ওয়ানডে ম্যাচও বাতিল করে দিল ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড। ধর্মশালার প্রথম ওয়ানডে ম্যাচটি বৃষ্টির জন্য এক বলও খেলা হয়নি। সবাই তাকিয়েছিল লখনউয়ের দ্বিতীয় ও ইডেনের তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচের দিকে। শুক্রবার বোর্ড জানিয়ে দেয়, ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বিতীয় ও তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচও বাতিল করে দেওয়া হচ্ছে।  দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচটি হওয়ার কথা ছিল লখনউয়ে। তৃতীয় ওয়ানডে ম্যাচের কেন্দ্র ছিল ইডেন গার্ডেন্স। ক্রীড়ামন্ত্রকের পরামর্শ অনুযায়ী দুটো ম্যাচই দর্শকশূন্য গ্যালারিতে করার কথা ছিল। কিন্তু পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে একটি ম্যাচও আর হচ্ছে না।

আরও পড়ুন: করোনা-কাঁটায় কলকাতাতেও, স্কুল কার্যত বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিল সাউথ পয়েন্ট

এদিকে, করোনার কোপে স্থগিত করে দেওয়া হল রোড সেফটি ওয়ার্ল্ড সিরিজও। শচীন-যুবরাজ-ইরফান পাঠানের মতো প্রাক্তন তারকারা ইতিমধ্যেই টুর্নামেন্ট জমিয়ে দিয়েছিলেন। কিন্তু পাঁচ দেশ নিয়ে আয়োজিত সিরিজ আপাতত স্থগিতেরই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।করোনাভাইরাসের আতঙ্কে বিশ্বজুড়ে একের পর এক টুর্নামেন্ট স্থগিত করে দেওয়া হচ্ছে। ইটালি, স্পেন, পর্তুগাল, ইংল্যান্ডের ফুটবল লিগগুলো সাময়িক বন্ধ হয়ে গিয়েছে।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest