Body of TMC councillor's son recovered in Gardenrich, dog belt looped around neck

গার্ডেনরিচে উদ্ধার TMC কাউন্সিলরের ছেলের দেহ, গলায় কুকুরের বেল্টের ফাঁস

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ফের খবরের শিরোনামে গার্ডেনরিচ। ব্যবসায়ীর বাড়ি থেকে কোটি কোটি টাকা উদ্ধারের পর এবার ওই অঞ্চলের তৃণমূল কাউন্সিলরের বাড়ি থেকে উদ্ধার তাঁরই ছেলের ঝুলন্ত দেহ। কুকুরের গলার বেল্টে গলা ফাঁস দেওয়া ছিল তাঁর। আত্মহত্যা নাকি খুন তা নিয়ে ধন্দ রয়েছে। কোনও সুইসাইড নোট মেলেনি। খবর পেয়ে তৃণমূল কাউন্সিলরের বাড়িতে ছুটে যান কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাজ হাকিম। দুঃসময় পরিবারের পাশে থাকার বার্তা দেন তিনি।

জানা গিয়েছে, মৃত পিন্টুর বাবা রঞ্জিত শীল গার্ডেনরিচ এলাকায় ১৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তথা কলকাতা পুর নিগমের ১৫ নম্বর বোরোর চেয়ারম্যান। অনুমান করা হচ্ছে, রাতেই ঘটনাটি ঘটি। রাতভর তাঁর অফিসের দরজা ভেজানো ছিল বলে জানা গিয়েছে৷ গভীর রাতে স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরা সেই দরজায় সামান্য ধাক্কা দিতেই তা খুলে যায়। এরপরই তৃণমূল কর্মীদের নজরে পড়ে পিন্টুর ঝুলন্ত দেহ৷ সঙ্গে সঙ্গে কাউন্সিলর রঞ্জিত শীলকে খবর দেওয়া হয়৷ মেটিয়াবুরুজ থানায় খবর পাঠানো হয়৷ পুলিশ এসে দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে।

আরও পড়ুন: UNESCO: পুজোর পদযাত্রায় পা মেলালেন মুখ্যমন্ত্রী, বললেন- মানবতার সঙ্গে কোনও আপস নয়

পুলিশের প্রাথমিক ধারনা, এটা আত্মহত্যা। স্থানীয় সূত্রে খবর, পিন্টুর সঙ্গে তাঁর স্ত্রীর বচসা হয়েছিল। তারপরই এই ঘটনা ঘটে। যদিও মৃতের স্ত্রীর দাবি, দম্পতির মধ্যে কোনও সমস্যা ছিল না। তাহলে কেন আত্মহত্যা করলেন পিন্টু? রহস্যমৃত্যুর পিছনে অন্য কোনও কারণ আছে কি? তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। শুরু হয়েছে তদন্তও। এদিকে পুলিশ জানিয়েছে, পিন্টু শীলের শরীরে কোনও আঘাতের চিহ্ন নেই৷

প্রসঙ্গত, শনিবারই ১৩৪ নম্বর ওয়ার্ডের পরিবহণ ব্যবসায়ী নিসার আলির বাড়ি থেকে বিপুল অঙ্কের নগদ উদ্ধার হয়। যা ঘিরে তুমুল চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। এর ঠিক পরের দিন দলীয় কার্যালয় তথা বাড়ি থেকেই উদ্ধার হল তৃণমূল কাউন্সিলরের ছেলের দেহ। পরপর দু’দিনের এই ঘটনায় আলোড়ন শহরজুড়ে।

আরও পড়ুন: E-Nuggets: মোবাইল গেমিং অ্যাপ বানিয়ে কী ভাবে লোক ঠকানো হত, ফাঁস করল ইডি

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest