Fake Vaccine: ভুয়ো টিকাকরণকাণ্ডের তদন্ত করুক কেন্দ্রীয় সংস্থা, দিল্লিতে চিঠি লিখলেন শুভেন্দু

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

কসবা ভুয়ো টিকাকাণ্ডে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডঃ হর্ষ বর্ধনকে চিঠি লিখলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। কেন্দ্রীয় সংস্থাকে দিয়ে এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত চেয়ে এই চিঠি লিখলেন শুভেন্দু অধিকারী। এর আগে শুক্রবার অভিযুক্ত দেবাঞ্জনের সঙ্গে রাজ্য়ের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের ঘনিষ্ঠতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন শুভেন্দু। তাঁর অভিযোগ, এই ঘটনা একটা বড়সড় চক্রান্ত।

শুভেন্দু অধিকারীর যুক্তি, অসংখ্য মানুষ কসবার ওই টিকাকরণ কেন্দ্র থেকে করোনার টিকা নিয়েছেন। আগামী দিনে এই ঘটনার জন্য তাঁদের যদি কোনও ক্ষতি হয়, তবে তার দায় কে নেবে? শুভেন্দুর অভিযোগ, এই ঘটনার জেরে বড় কোনও অঘটন ঘটলে রাজ্য সরকার কেন্দ্রকেই দায়ী করত। তাই এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হওয়া দরকার। দেবাঞ্জন ছাড়া আর কারা রয়েছেন এর পিছনে, তা প্রকাশ্যে আসা দরকার।

আরও পড়ুন: জর্জ ফ্লয়েড হত্যায় দোষী মার্কিন পুলিশকর্মীর সাড়ে ২২ বছর জেলের সাজা

দেশব্যাপী বিনামূল্যে টিকাপ্রদান কর্মসূচির জন্য চিঠির শুরুতেই স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান বিধানসভার বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। লেখেন, মধ্য প্রদেশ, উত্তর প্রদেশ কিংবা গুজরাট যখন টিকাকরণের ক্ষেত্রে প্রতিদিনই লক্ষ্যমাত্রার শিখর ছুঁয়ে যাচ্ছে, বাংলা তখন অনেকটাই পিছিয়ে। সরকারের ইচ্ছার অভাবকে তার জন্য দায়ী করেছেন বিজেপি নেতা। সঙ্গে টিকাকরণের ক্ষেত্রে শাসকদলের রাজনৈতিক প্রভাব খাটানোরও অভিযোগ জানিয়েছেন শুভেন্দু।

কসবা ভুয়ো টিকাকাণ্ডে দেবাঞ্জন দেবের বিস্তারিত উল্লেখ করে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাছে শুভেন্দু আবেদন জানান, গোটা বিষয়টির তদন্ত করুক কেন্দ্রীয় সংস্থা। বলেন, মানুষের জীবন নিয়ে এখানে খেলা হয়েছে। একইসঙ্গে ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, শান্তনু সেন, লাভলি মৈত্রের সঙ্গে দেবাঞ্জনের ছবি প্রকাশ্যে আসার বিষয়টিরও উল্লেখ রয়েছে চিঠিতে।

শুক্রবারই দলীয় বিধায়কদের নিয়ে স্বাস্থ্যভবনে যান শুভেন্দু অধিকারী। গোটা ঘটনায় উচ্চ পর্যায়ের তদন্তের দাবি জানান তিনি। সেখানেই জানিয়েছিলেন, ঠিকমতো তদন্ত না এগোলে তিনি আদালতের দ্বারস্থ হবেন। শুভেন্দুর কথায়, “যদি কোনও অঘটন ঘটে যেত তখন বলত (রাজ্য সরকার) মোদীজির পাঠানো ভ্যাকসিন নিয়ে এই ঘটনা ঘটেছে। পশ্চিমবঙ্গে টিকাকরণ নিয়ে একটা বড় ষড়যন্ত্র চলছে। শাসকদলের সাংসদ মিমি চক্রবর্তী ভ্যাকসিন নিচ্ছেন, সাধারণ মানুষকেও বিপদের মুখে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে।” দরকারে সিবিআই তদন্ত দাবি করা হবে বলেও শুক্রবার ইঙ্গিত দিয়েছিলেন তিনি। এরইমধ্যে দিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে চিঠি।

আরও পড়ুন: আবাসনের চেয়ারপার্সনকে খুনের হুমকি, গ্রেপ্তার অভিনেত্রী পায়েল রোহতগি

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest