JAWHAR SIRCAR SUBMITS NOMINATION FOR RAJYA SABHA ELECTIONS , BJP NOT TO CONTEST SAID SUVENDU ADHIKARI

রাজ্যসভার উপনির্বাচনে মনোনয়ন জমা দিলেন জহর সরকার, শক্তি কম, প্রার্থী দিচ্ছে না BJP, জানালেন Suvendu

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

রাজ্যসভা নির্বাচনের জন্য বিধানসভায় গিয়ে মনোনয়ন জমা দিলেন তৃণমূল প্রার্থী জহর সরকার৷ কয়েকদিন আগেই তাঁর নাম ঘোষণা করেছিল তৃণমূল কংগ্রেস৷ আগামী ৯ অগাস্ট রাজ্যসভার নির্বাচনে ভোটগ্রহণ হওয়ার কথা৷ কিন্তু আদৌ জহর সরকারকে কোনও প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখে পড়তে হয় কি না, সেটাই ছিল বড় প্রশ্ন৷

রাজ্যসভার উপনির্বাচনে প্রার্থী দেবে না বিজেপি। বুধবার এই সিদ্ধান্তের কথা জানালেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। বুধবার শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) জানিয়েছেন শাসকদলের সঙ্গে অনেকটা ফারাক। নিজেদের শক্তি কম থাকায় রাজ্যসভার উপনির্বাচনে প্রার্থী না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিজেপি (BJP)। অন্যদিকে এদিন দুপুরেই বিধানসভায় রিটার্নিং অফিসারের কাছে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন জহর সরকার। এরপর সাংবাদিকদের মুখোমুখি হন তিনি। পাশেই ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee)।

আরও পড়ুন : ‘আমি লিডার নই, ক্যাডার’, Sonia’র সঙ্গে সাক্ষাতের পর তাৎপর্যপূর্ণ মন্তব্য Mamata’র

প্রার্থী হওয়া প্রসঙ্গে জহরবাবু বলেন, “যা চলছে তা দেখে চুপ করে থাকা যায় না। ধর্মীয় নিরপেক্ষতার ওপর আঘাত এসেছে। রাজনীতি কখনও করিনি। তবে ডিমানিটাইজেশন (Demonetisation) ও জিএসটির বিরোধিতা করেছি। লিখেছি। যা এতদিন লিখেছি, এবার তা একটি মঞ্চে বলার সুযোগ পাব। ১৬ বছর দিল্লিতে কাজ করেছি। আর এখানেও বাদুর ঝোলা হয়ে বাসে চড়েছি। এ রাজ্যের কথা যেভাবে দিল্লিতে বলা দরকার, তেমন গভীরে গিয়ে আলোচনা হয় না। অনেকেই ছিলেন, অনেকেই আছেন। এই দুটি ব্যাপারেই কাজ করতে পারলে ভাল লাগবে।”

দীনেশ ত্রিবেদী রাজ্যসভার সাংসদ পদে ইস্তফা দেওয়ায় এ রাজ্য থেকে একটি আসন ফাঁকা রয়েছে৷ সেই আসনেই ভোট গ্রহণ হবে৷ মুকুল রায়, যশবন্ত সিনহার মতো হেভিওয়েট নেতাদের নাম চর্চায় থাকলেও জহর সরকারকে প্রার্থী করে চমক দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ মুখ্যমন্ত্রী নিজেই ফোন করে প্রাক্তন আইএএস অফিসারকে এই প্রস্তাব দিয়েছিলেন৷ বরাবর বিজেপি এবং নরেন্দ্র মোদি- অমিত শাহদের কড়া সমালোচক হিসেবে পরিচিত জহর সরকার সেই প্রস্তাবে সম্মতি জানিয়েছেন৷ প্রসার ভারতীর প্রাক্তন সিইও দাবি করেছেন, মোদি বিরোধী লড়াই অব্যাহত রাখতেই তৃণমূলের প্রস্তাবে রাজি হয়েছেন তিনি৷

আরও পড়ুন : I-Pac: জেরার জন্য আইপ্যাক সদস্যদের চিঠি দিয়ে তলব পুলিশের, ত্রিপুরায় পা ব্রাত্যদের

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest