Kolkata is the safest city in the country, women are also safe, says the central report

দেশের মধ্যে কলকাতাই সবচেয়ে নিরাপদ শহর, মহিলারাও সুরক্ষিত, বলছে কেন্দ্রীয় রিপোর্ট

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ফের প্রমাণ মিলল, দেশের সবচেয়ে নিরাপদ শহর কলকাতা (Kolkata)। দেশের ১৯টি প্রধান শহরের মধ্যে কলকাতার অপরাধের হার সব থেকে কম। এছাড়াও যেখানে দেশের অন্যান্য বহু শহরে ২০১৮ সাল থেকে ২০২০ পর্যন্ত অপরাধের সংখ্যা বেড়েছে, সেখানে কলকাতার ক্ষেত্রে এই সংখ্যা কমে গিয়েছে অনেকটাই। মঙ্গলবার দিল্লি থেকে প্রকাশিত হয়েছে ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরো (এনসিআরবি)র রিপোর্ট। তাতেই মিলেছে এই তথ্য।

অপরাধের নিরিখে দেশের অন্যান্য মেট্রো শহর গুলির মধ্যে ‘নিরাপদতম’ কলকাতা। কেন্দ্রীয় সংস্থার দেওয়া রিপোর্টেই এই তথ্য প্রকাশিত হয়েছে। রিপোর্টে এ-ও বলা হয়েছে যে, গত তিন বছরে নিয়মিত হারে অপরাধের সংখ্যা কমেছে বাংলার রাজধানীতে। এমনকি, মহিলাদের বিরুদ্ধে অপরাধের ঘটনাতেও দিল্লি, বেঙ্গালুরু, মুম্বইয়ের মতো শহরগুলির থেকে বেশি নিরাপদ কলকাতা।

মঙ্গলবার জাতীয় ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরো (এনসিআরবি) গত এক বছরের অপরাধের একটি পরিসংখ্যান প্রকাশ করেছে। ‘ক্রাইম ইন ইন্ডিয়া, ২০২০’ শীর্ষক সেই রিপোর্টে দেখা যাচ্ছে, মোট অপরাধের সংখ্যা দেশের অন্যান্য মেট্রোশহরগুলির থেকে কলকতায় অনেকটাই কম। এনসিআরবি-র পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০২০ সালে প্রত্যেক লক্ষ জনসংখ্যায় কলকাতায় মোট অপরাধের হার ১২৯.৫। যেখানে চেন্নাইয়ে অপরাধের হার ১৯৩৭.১, দিল্লিতে ১৬০৮.৬, আমদাবাদে ১৩০০, বেঙ্গালুরুতে ৪০১.৯ এবং মুম্বইয়ে ৩১৮.৬।

কলকাতায় অপরাধের হার কমেছে এই তথ্য পেয়ে খুশি লালবাজারের কর্তা থেকে কলকাতা পুলিশের অধিকারিক ও কর্মীরা সকলেই।  উল্লেখ্য গতবছর এই গত বছর এনসিআরবির রিপোর্টে এই রাজ্যের তথ্য প্রকাশিত হয়নি। এনসিআরবির তরফে জানানো হয়েছিল সময়মতো না আসায় রিপোর্টে ওই তথ্যগুলি উল্লেখ করা যায়নি।

২০১৮ সালে কলকাতায় অপরাধের সংখ্যা ছিল ১৯ হাজার ৬৮২। সেখানে ২০১৯ সালে এই সংখ্যা হয় ১৭ হাজার ৩২৪। ২০২০ সালে এই অপরাধের সংখ্যা কমে গিয়ে হয়েছে ১৫ হাজার ৫১৭। নারীদের উপর অত্যাচারের সংখ্যাও কলকাতায় অনেক কম। গত বছর কলকাতায় পণের বলি হয়েছিলেন ন’জন। সেখানে দিল্লিতে এই সংখ্যা ১১১। এ ছাড়়াও লখনউয়ে পণের বলি ৪৮। কানপুরে ৩০। গত বছর শ্লীলতাহানির শিকার হয়েছিলেন ৩০৪ জন। এই সংখ্যা দিল্লিতে ১ হাজার ৮০৫, মুম্বইয়ে ১ হাজার ৫০৯।

আবার ধর্ষণের (Rape) সংখ্যা কলকাতায় ছিল ১১টি। সেখানে দিল্লিতে এই সংখ্যা ৯৬৭, জয়পুরে ৪০৯, মুম্বইয়ে ৩২২, বেঙ্গালুরুতে ১০৮। ২০২০ সালে অপহরণের সংখ্যা কলকাতায় ছিল ৩০৮। সেখানে দিল্লি, মুম্বই, জয়পুর, লখনউ-সহ দেশের বেশিরভাগ শহরেই এই অপরাধের সংখ্যা বেশি। চুরি বা ডাকাতির সংখ্যাও অন্যান্য শহরের থেকে কলকাতায় অনেকটা কম বলে জানিয়েছে এনসিআরবি রিপোর্ট।

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest