নারদ মামলায় অন্তর্বর্তীকালীন জামিন পেলেন ফিরহাদ-সুব্রত-মদন-শোভন

আগেও তো তাঁরা প্রভাবশালী ছিলেন, এখন গ্রেফতার কেন? সলিসিটর জেনারেলকে বিচারপতি মুখোপাধ্যায়ের প্রশ্ন।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

নারদ মামলায় অন্তর্বর্তীকালীন জামিন পেলেন চার নেতা। শুক্রবার সেই নির্দেশ দিয়েছে কলকাতা হাইকোর্টের পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ। দু’লাখ টাকার ব্যক্তিগত বণ্ডে ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়, মদন মিত্র এবং শোভন চট্টোপাধ্যায়ের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন মঞ্জুর হয়। তবে হাইকোর্ট নির্দেশ দিয়েছে, সংশ্লিষ্ট মামলা এবং নারদকাণ্ড সংক্রান্ত কোনও বিষয়ে সংবাদমাধ্যমে কথা বলতে পারবেন না বলে মুচলেকা দিতে হবে চার নেতাকে

গত ১৭ মে রাজ্যের পরিবহন মন্ত্রী  ফিরহাদ হাকিম, পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, বিধায়ক মদন মিত্র ও আর এক নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেফতার করে সিবিআই। পরে আদালতের নির্দেশে তাঁদের গৃহবন্দি করার কথা বলা হয়। বৃহত্তর বেঞ্চে চলছিল সেই মামলার শুনানি। এই মামলায় সিবিআই-এর পক্ষে সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা দুটি শর্ত রেছিলেন। দুটিই শর্তই মেনে নেওয়া হয়েছে। সলিসিটর জেনারেলের পক্ষ থেকে শর্ত রাখা হয়েছিল, যাতে জামিন দেওয়া হলেও অভিযুক্তরা টিভি বা সংবাদপত্রে কোনও সাক্ষাৎকার দিতে না পারেন। এছাড়া, পরবর্তীকালে জামিন খারিজ হয়ে গেলে ফের চারজনকে গ্রেফতার করা হতে পারে বলেও শর্ত রাখা হয়েছিল।

আরও পড়ুন : কলাইকুণ্ডার বৈঠকে শুভেন্দুর নাম, বৈঠকে যোগ না দিয়ে দিঘা চলে যেতে পারেন ‘অসন্তুষ্ট’ মমতা

কেন্দ্রের সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বললেন, ‘‘আমি নিবেদন করছি জামিন দেবেন না।’’ মেহতার কথায়, ‘‘৪ নেতা-মন্ত্রী প্রভাবশালী ব্যক্তি। জামিন হলে মানুষের ভাবাবেগকে ব্যবহার করার সুযোগ পেয়ে যাবেন।’’ তাছাড়া জামিন হলে ‘‘মূল বিষয়টি ঠান্ডা ঘরে চলে যাবে’’ বলেও বেঞ্চকে জানালেন তিনি। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি বিন্দল আশ্বস্ত করলেন, ‘‘না। আমরা মূল বিষয়টিও শুনব। ঠান্ডা ঘরে যাবে না। নিশ্চিন্ত থাকুন’’

আগেও তো তাঁরা প্রভাবশালী ছিলেন, এখন গ্রেফতার কেন? সলিসিটর জেনারেলকে বিচারপতি মুখোপাধ্যায়ের প্রশ্ন, ‘‘আমাদের একটি পর্যবেক্ষণ রয়েছে। তদন্ত শুরু হয়েছিল ২০১৭ সালে। এতদিন সিবিআই ৪ নেতা-মন্ত্রীকে গ্রেফতার করেনি কেন। সাধারণত তদন্তের স্বার্থেই অভিযুক্তদের গ্রেফতার করা হয়ে থাকে। আগেও তো এঁরা প্রভাবশালীই ছিলেন। তবে এখন চার্জশিট জমা দেওয়ার পর গ্রেফতার করা হল কেন?’’

ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি বললেন, ‘‘আমরা প্রস্তাব দিচ্ছি অভিযুক্তদের অন্তর্বর্তী জামিন দেওয়া হোক কিছু শর্তের বিনিময়ে।’’ আপনার কি বলতে চান মেহতা?

আরও পড়ুন : ইংরেজদের কাছে বহুবার ক্ষমা প্রার্থনা, নিজেই নিজেকে দিয়েছিলেন ‘বীর’ উপাধি – জন্মদিনে জানুন সাভারকারের বিতর্কিত জীবন সম্পর্কে

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest