পামেলার গাড়িতে রাখতে মাদক কিনেছিল এক লাস্যময়ী! পুলিশের জালে রাকেশ ঘনিষ্ঠ যুবতী

১৯ ফেব্রুয়ারি বিজেপি-র যুব মোর্চার রাজ্য সম্পাদক এবং হুগলি জেলার পর্যবেক্ষক পামেলা গোস্বামীকে নিউ আলিপুরে ১০ লক্ষ টাকার কোকেন-সহ গ্রেফতার করে পুলিশ।

মাদক মমালায় প্রিয়াঙ্কা সিং নামে আরও এক জনকে গ্রেফতার করল কলকাতা পুলিশ। তাঁকে মঙ্গলবার আদালতে তোলা হবে বলে জানা গিয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, রাকেশ সিং ধৃত যুবতী প্রিয়াঙ্কা সিং ওরফে সুইটির সঙ্গে মাদক সরবরাহকারীর সঙ্গে যোগাযোগ ছিল। সে-ই মাদক কিনে রাকেশ সিংকে দিয়েছিল বলেও খবর। পুলিশের দাবি, প্রতি গ্রাম মাদক সাড়ে ৯ হাজার টাকার বিনিময়ে কিনেছিল সুইটি। তাঁকে ও রাকেশ সিংকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করা হতে পারে বলে খবর। উল্লেখ্য, আজ দুপুরে রাকেশ সিংকেও আলিপুর আদালতে তোলা হবে।

আরও পড়ুন: লাল-সবুজ পেরিয়ে এবার গেরুয়া বলয়ে মিঠুন চক্রবর্তী, ফিল্মি ডায়লগ বলে ব্রিগেডের মন কাড়ার চেষ্টা

গ্রেপ্তারির পর বিজেপি নেত্রী পামেলা গোস্বামী (Pamela Goswami) বারবার দাবি করেছিলেন তাঁকে ফাঁসানো হচ্ছে। প্রথম থেকেই তাঁর অভিযোগের তির ছিল বিজেপি নেতা রাকেশ সিংয়ের দিকে। ধৃত বিজেপি নেত্রী বারবার দাবি করেছিলেন গ্রেপ্তারির দিন গাড়িতে থাকা অমৃত নামের এক যুবক তাঁর ব্যাগে কোকেন রেখেছিলেন। এবং রাকেশ সিংয়ের নির্দেশেই গোটা ঘটনা ঘটেছে।

গোয়েন্দারা তল্লাশি চালিয়ে সূরযকে গ্রেফতার করতে পারলেও অমৃতের এখনও কোনও হদিশ মেলেনি। তাঁর খোঁজে ইতিমধ্যেই তিন রাজ্যে তল্লাশি চালাচ্ছেন কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দারা। পুলিশ সূত্রে খবর, কলকাতা এবং সংলগ্ন জেলার বিভিন্ন জায়গার সিসি ক্যামেরার ফুটেজও সংগ্রহ করে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দু’ডজনের তালিকা তৈরি করে জেরা করা হচ্ছে।

পামেলার অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। এরপরই সূরয নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে পুলিশ গ্রেপ্তার করে  আরিয়ান দেব সিং নামে রাকেশ ঘনিষ্ঠ এক যুবক। জানা গিয়েছে, এই যুবকই পুলিশকে জানিয়েছিল যে নিউ আলিপুরের কোন জায়গায় রয়েছে পামেলা এবং তাঁর কাছে কোকেন রয়েছে। রাকেশের নির্দেশেই এই কাজ করেছিল ধৃত।

গত ১৯ ফেব্রুয়ারি বিজেপি-র যুব মোর্চার রাজ্য সম্পাদক এবং হুগলি জেলার পর্যবেক্ষক পামেলা গোস্বামীকে নিউ আলিপুরে ১০ লক্ষ টাকার কোকেন-সহ গ্রেফতার করে পুলিশ। তদন্তে নেমে কলকাতা পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ রাকেশ সিংহকে বর্ধমানের গলসি থেকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতার করা হয় রাকেশ ঘনিষ্ঠ জিতেন্দ্রকুমার সিংকে।

আরও পড়ুন: রেলভবনের মানচিত্র সময়মতো মেলেনি, মমতার অভিযোগ মেনে নিল রেল