সোজা অভিষেকের শ্যালিকার বাড়িতে CBI,ফটকে গাড়ি রেখে ঢুকতে হল হেঁটে

মঙ্গলবারই সিবিআইয়ের তদন্তকারীদের সঙ্গে দেখা করবেন বলে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে জানান রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতার হাতে তৈরী নেতারা গুটি গুটি পায়ে গিয়েছেন শাহ-মোদীর দলে। ভয় ও লোভ এই দুই সম্পদ বুকে আঁকড়ে তারা গেরুয়া টিমে হাজির হয়েছেন। যারা যাননি, এবার তাদের পিছনে যে সিবিআই দৌড়ে বেড়াবে সেটা এই বঙ্গবাসীর জানা। আরএসের কাজ সিবিআইয়ের নীতি ঠিক করা। সিবিআইয়ের কাজ বিরোধীদের ভয় পাওয়ানো। এই কাজটি ছাড়া, সিবিআইয়ের সাফল্য বলতে কিস্সু নেই। তবে ভয় দেখানোর কাজটা তারা খুব ভালো করেন , তাতে কোনও সন্দেহ নেই। এবার সেটা শুরু হয়েছে অভিষেক ও ফিরহাদের বিরুদ্ধে। ইডি ভয় দেখাতে শুরু করেছে ফিরহাদকে।

কয়লা কাণ্ডে তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের শ্যালিকা মেনকা গম্ভীরকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে তাঁর বাড়িতে হাজির সিবিআই আধিকারিকরা। সোমবার দুপুর ১২টা নাগাদ পঞ্চসায়রে মেনকার বাড়িতে পৌঁছন সিবিআই কর্তারা। তাঁদের সঙ্গে ছিলেন মহিলা অফিসারও।

আরও পড়ুন: ঐতিহ্য মেনে গাওয়া হল না ‘আশ্রম সঙ্গীত’, ভাষা দিবসে ফের বিতর্কে বিশ্বভারতীর উপাচার্য

যদিও ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করলে নিরাপত্তারক্ষীরা বাধা দেন। আবাসনের গেট বন্ধ করে দেওয়া হয়। পরে রক্ষীদের সঙ্গে বেশ কিছুক্ষণ কথাবার্তার পর গেট খুলে দিলে ভিতরে প্রবেশ করেন তদন্তকারীরা। তবে আবাসনের ভিতরে তাঁদের গাড়ি ঢুকতে দেওয়া হয়নি। পায়ে হেঁটে ভিতরে প্রবেশ করেন তাঁরা। রবিবারই কয়লা কাণ্ডে নোটিস দেওয়া হয় মেনকা এবং অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরাকে। সোমবার রুজিরা সিবিআইয়ের নোটিসের জবাবও দিয়েছেন।

মঙ্গলবারই সিবিআইয়ের তদন্তকারীদের সঙ্গে দেখা করবেন বলে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাকে জানান তৃণমূল সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার সিবিআই-কে ইমেল পাঠিয়ে তিনি এমনই জানিয়েছেন বলে সংস্থা সূত্রের খবর। ওই চিঠিতে রুজিরা লিখেছেন, মঙ্গলবার বেলা ১১টা থেকে বেলা ৩টের মধ্যে সিবিআইয়ের তদন্তকারী দল তাঁর বাড়িতে এসে তাঁর সঙ্গে কথা বলতে পারে।

আজ (সোমবার) সকালে সিবিআইয়ের সোটিসে সাড়া দিয়েছেন অভিষেকের বন্দোপাধ্যায়ের স্ত্রী রুজিরা বন্দোপাধ্যায়। কাল সকাল ১১ টা থেকে ৩ টের মধ্যে সিবিআইয়ের প্রশ্নের মুখোমুখি হতে প্রস্তুত তিনি। কিন্তু কী কারণে তাঁকে তলব করা হচ্ছে, তা জানেন না রুজিরা, সেই প্রসঙ্গ উল্লেখ করেছেন চিঠির উত্তরে। অন্যদিকে, সিবিআই তরফে জানা গিয়েছে, কয়লাকাণ্ড নিয়ে একাধিক অভিযুক্তকে তলব করার সময় বার বার উঠে এসেছে রুজিরা বন্দোপাধ্যায়ের নাম। সেই মর্মেই তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

এদিকে ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টের লেনদেনে অসঙ্গতির অভিযোগ এনে পুরমন্ত্রী তথা কলকাতা পুরসভার প্রশাসক ফিরহাদ (ববি) হাকিমের বড় মেয়ে প্রিয়দর্শিনীকে নোটিস দিয়ে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি) তলব করেছে বলে জানা গিয়েছে। তবে নোটিসের বিষয় ফিরহাদ হাকিম বলেন, ‘‘এই বিষয়ে আমি কিছু জানি না। এবং এখনও পর্যন্ত কিছু শুনতে পাইনি।’’

আরও পড়ুন: ১৫ মে-র মধ্যে নতুন প্রাইভেসি পলিসিতে সম্মতি না জানালে কি হবে আপনার Whatsapp -এর