School uniform is now blue and white, government schools have started the work of distribution of clothes

School Uniform: স্কুল ইউনিফর্ম এবার নীল-সাদা, সরকারি স্কুলে শুরু পোশাক বিলির কাজ

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

নানা বিতর্কের পর অবশেষে রাজ্যের সরকারি এবং সরকার অনুমোদিত স্কুলে নীল সাদা পোশাক দেওয়ার কাজ শুরু হল। কোন স্কুলে কত পরিমাণ পোশাক প্রয়োজন তা নিয়ে তথ্য সংগ্রহ করা শুরু করে দিয়েছে। স্কুল শিক্ষা দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে, ইতিমধ্যেই এ নিয়ে স্কুলের প্রধান শিক্ষকদের কাছে চালান পাঠানো হয়েছে। কোন স্কুলে কত পরিমাণ পোশাক দেওয়া হচ্ছে তা ওই চালান লেখা হবে। চালানে প্রধান শিক্ষকের স্বাক্ষর ছাড়া পোশাক পাঠানো হবে না।

কলকাতা এবং হাওড়ার বেশ কিছু সরকারি স্কুলে পড়ুয়াদের নীল-সাদা পোশাক দেওয়া শুরু হয়েছে। কলকাতায় প্রাথমিক ও মাধ্যমিক মিলিয়ে ১১৭টি স্কুলে এই পোশাকের একটি করে সেট দেওয়া হয়েছে বলে কলকাতা জেলা শিক্ষা দফতর সূত্রের খবর। তবে অতি দ্রুততার সঙ্গে রাজ্যের সব জেলায় সাদা-নীল পোশাক স্কুল পড়ুয়াদের কাছে পৌঁছে দিতে চাইছে শিক্ষা দফতর।

তাদের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, প্রাক্-প্রাথমিক থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত ছেলেদের জন্য একটি হাফ শার্ট, একটি ফুল শার্ট, একটি হাফ প্যান্ট এবং একটি ফুল প্যান্ট দেওয়া হবে। জামার রং হবে সাদা ও প্যান্টের রং হবে নেভি ব্লু। মেয়েদের যেমন আগে টিউনিক ও স্কার্ট, সালোয়ার, কামিজ এবং ওড়না ছিল, তা-ই থাকবে। মেয়েদের পোশাকেরও রং হবে সাদা ও নেভি ব্লু। সবেতেই থাকতে হবে বিশ্ববাংলার লোগো।

আরও পড়ুন: Indian Museum: জাদুঘরে এলোপাথারি গুলি, নিহত এক জওয়ান, আটক আততায়ী

প্রসঙ্গত, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগেই স্কুলে সাদা পোশাক দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন। আর সেই সঙ্গে পোশাকে বিশ্ব বাংলার লোগো ব্যবহার করা হবে বলে ঘোষণা করেছিলেন। তা নিয়ে কম বিতর্ক তৈরি হয়নি। এনিয়ে মামলা গড়ায় কলকাতা হাইকোর্টে। রাজ্যের সব স্কুলে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ুয়াদের পোশাক নীল-সাদা হয়ে গেলে স্কুলগুলি তাদের নিজস্ব রঙের পোশাকের বৈশিষ্ট্য হারাবে বলে আগেই সরব হয়েছিলেন অনেক স্কুলের প্রধান শিক্ষক।

বঙ্গীয় শিক্ষক ও শিক্ষা কর্মী সমিতির তরফে স্বপন মণ্ডল বলেন, “আমরা এই সিদ্ধান্তকে রাজ্য সরকারের আগ্রাসন হিসেবেই দেখছি। কারণ, কোনও স্কুলের পোশাক কেমন হবে তা স্থানীয় মানুষের আবেগের সঙ্গে যুক্ত থাকে।” তবে এই প্রক্রিয়ায় কোনও ভুল দেখছেন না পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি দিব্যেন্দু মুখোপাধ্যায়। তিনি বলেন, “প্রত্যেক রাজ্যের স্কুলের একটি নির্দিষ্ট পোশাক বা ইউনিফর্ম রয়েছে। তাই বাংলার স্কুলগুলিতে যদি একটি নির্দিষ্ট ইউনিফর্ম হয় তাহলে ভুল কোথায়?”

আরও পড়ুন: Independence Day 2022: রেডরোডে পতাকা উত্তোলন মুখ্যমন্ত্রীর, পা মেলালেন আদিবাসী নৃত্য শিল্পীদের সঙ্গে

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest