আজ ফোকাস-এ

নিউটাউনের অভিজাত এলাকায় শুটআউট, নিহত 2 গ্যাংস্টার

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

প্রকাশ্য দিবালোকে নিউটাউনের অভিজাত আবাসনের কাছে চলল মুহূর্মুহ গুলি। আর তার শব্দে তেতে উঠল সল্টলেক। দুষ্কৃতীদের সঙ্গে গুলির লড়াই রাজ্য পুলিশের এসএটিএফের। কুখ্যাত গ্যাংস্টারকে ধরতে গেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। তখন পাল্টা আক্রমণে নামে কলকাতা পুলিশের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স। আর তাতেই পাঞ্জাবের এক কুখ্যাত গ্যাংস্টার জয়পাল সিং বুল্লার গুলিবিদ্ধ হয়েছে বলে খবর। এমনকী গুলিবিদ্ধ হয়েছে আরও এক দুষ্কৃতী। মাদক ব্যবসায় জড়িত জয়পালের খোঁজ করতেই তল্লাশি চালায় পুলিশ। এদের কাছে একাধিক অস্ত্র আছে বলে আশঙ্কা ছিল পুলিশের কাছে। তাই নিজেদের পুরোপুরি প্রস্তুতি নিয়েই পথে নামে এসটিএফ। অভিজাত এলাকায় এই ধরনের গোলাগুলির ঘটনা কার্যত নজিরবিহীন বলেই মনে করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন : ‘মোদীকে সরানোই আমাদের লক্ষ্য’, কৃষক নেতাদের সঙ্গে বৈঠক শেষে হুঁশিয়ারি Mamata-র

সূত্রের খবর, গুলিতে দুই দুষ্কৃতীর মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু এসটিএফ এই দাবি করেনি। শাপুরজির একটি আবাসনে গা–ঢাকা দিয়েছিল এই পাঞ্জাবের গ্যাংস্টার জয়পাল সিং বুল্লা। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে ধরতে গিয়েছিল এসটিএফ। তার জেরেই ঘিরে ফেলা হয় আবাসন। আচমকাই এসটিএফ অফিসারদের লক্ষ্য করে গুলি চালায় দুষ্কৃতীরা। পাল্টা জবাব দেয় এসটিএফ। গুলিতে মৃত্যু হয় দুই দুষ্কৃতীর। ওই বহুতল আবাসনে কাউকে প্রবেশ করতে দেওয়া হচ্ছে না।
উত্তরপ্রদেশে পুলিশের সঙ্গে দুষ্কৃতীদের গুলির লড়াই ও এনকাউন্টারের ঘটনা আকছার ঘটলেও বাংলায় সাম্প্রতিক অতীতে এমন দৃষ্টান্ত নেই। এসটিএফ গোপনে খবর পায় নিউটাউনের সাপুরজির আবাসনে লুকিয়ে রয়েছে পাঞ্জাব থেকে আসা দুষ্কৃতীরা। তারা বেআইনি আস্ত্র ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত। এসটিএফের সদস্যরা ওই আবাসনে লুকিয়ে থাকা দুষ্কৃতীদের ধরতে গেলে গুলি চালাতে শুরু করে তারা। ৯ এমএম পিস্তল থেকে চলে গুলি। এরপর আবাসনের ভেতর পাল্টা গুলি চালাতে বাধ্য হয় পুলিশও। রীতিমত চলে গুলির লড়াই।
চলতি মাসের ৬ তারিখ রাজ্য পুলিশের এসটিএফ আধিকারিকরা বীরভূমের সিউড়ি থেকে প্রচুর অস্ত্র উদ্ধার করে। তদন্তে নেমে জানা যায় বিহার থেকে বেআইনি ভাবে আনা হচ্ছিল ওই অস্ত্র। সেই সূত্র ধরেই পাঞ্জাবের গ্যাংস্টারদের খোঁজ পায় পুলিশ। নিউটাউনের সাপুরজি আবাসনে তারা লুকিয়ে আছে বলে খবর আসে। সেইমতো এদিন বেলা সাড়ে তিনটে নাগাদ সাপুরজি আবাসনের বি ১৫৪ নম্বর বিল্ডিং-এর নীচে হাজির হন ১০-১২ জন এসটিএফ আধিকারিক।
এসটিএফ আধিকারিকদের দেখেই গুলি ছুড়তে শুরু করে দুষ্কৃতীরা। পাল্টা গুলি চালায় পুলিশও। তাতে দুই দুষ্কৃতীর মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। এদের মধ্যে একজনের নাম জয়পাল ধুল্লা, আরেকজন জসপিত জস্সি। দুজনেই পঞ্জাবের বাসিন্দা। তারা কবে থেকে ওই আবাসনে ছিল তাঁর খোঁজ চলছে।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest