‘নেকুপুষুমুনু আমার’, সোনালির ‘দিদি’ বন্দনাকে ব্যাঙ্গ শ্রীলেখার

সোনালির টুইটের স্ক্রিনশট শেয়ার করে শ্রীলেখা লেখেন, ‘নেকুপুষুমুনু আমার’। বলাই বাহুল্য, এই পোস্ট ভাইরাল হতে সময় লাগেনি।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

‘দিদি বদলে গিয়েছেন’। বিধানসভা ভোটের টিকিট না পেয়ে মাসদুয়েক আগে একথা বলে কাঁদতে কাঁদতে তৃণমূল ছাড়ার কথা ঘোষণা করেছিলেন দলের বহু পুরনো সৈনিক সাতগাছিয়ার প্রাক্তন বিধায়ক তথা বিধানসভার প্রাক্তন ডেপুটি স্পিকার সোনালি গুহ। আর আজ সকালে সেই সোনালি তৃণমূলে ফিরতে চেয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশে আবেগঘণ টুইট করেছেন।

সোনালির এই ভোলবদলকে তীব্র কটাক্ষ করলেন অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র। সোনালির টুইটের স্ক্রিনশট শেয়ার করে শ্রীলেখা লেখেন, ‘নেকুপুষুমুনু আমার’। বলাই বাহুল্য, এই পোস্ট ভাইরাল হতে সময় লাগেনি। বাম মনস্ক শ্রীলেখা এবার নির্বাচনের আগে থেকেই সক্রিয়ভাবে বামেদের প্রচারে অংশ নিয়েছিলেন। সংযুক্ত মোর্চার ব্রিগেডেও গিয়েছিলেন। বরাবরই সোশ্যাল মিডিয়ায় রাজনৈতিক বিষয়ে খোলমেলা মতপ্রকাশ করেছেন।। এদিনও তাঁর ব্যতিক্রম হল না।

আরও পড়ুন : বৈঠকে বসুন নয়তো আন্দোলনের ঝাঁজ বাড়বে, মোদিকে হুমকি আন্দোলনকারী কৃষকদের

সাতগাছিয়ার প্রাক্তন বিধায়ক শনিবার টুইটারে তাঁর প্রিয় দিদির উদ্দেশ্যে লিখেছেন, “সম্মানীয়া দিদি, (Mamata Banerjee) আমার প্রণাম নেবেন। আমি সোনালি গুহ, অত্যন্ত ভগ্ন হৃদয়ে বলছি যে আমি আবেগপূর্ণ হয়ে চরম অভিমানে ভুল সিদ্ধান্ত নিয়ে অন্য দলে গিয়েছিলাম। যেটা ছিল আমার চরম ভুল সিদ্ধান্ত। কিন্তু সেখানে নিজেকে মানিয়ে নিতে পারিনি। মাছ যেমন জল ছাড়া বাঁচতে পারে না, তেমনই আমি আপনাকে ছাড়া বাঁচতে পারব না।’’

ওই একই চিঠিতে সোনালি লেখেন, “দিদি আমি আপনার কাছে ক্ষমাপ্রার্থী, দয়া করে আমাকে ক্ষমা করে দিন। আপনি ক্ষমা না করলে আমি বাঁচব না। আপনার আঁচলের তলে আমাকে টেনে নিয়ে, বাকি জীবনটা আপনার স্নেহতলে থাকার সুযোগ করে দিন। ধন্যবাদান্তে, আপনার স্নেহের সোনালি গুহ (Sonali Guha)৷’’ সোনালি গুহ-র তৃণমূলে ফেরার আবেদনের বিষয়টি প্রকাশ্যে আসতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় কটাক্ষ ছুঁড়ে দিয়েছেন অনেকেই।

তখন অনেকেই বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলের দিকে পা বাড়িয়ে ছিলেন৷ কিন্তু কিভাবে নেত্রীর মুখোমুখি হবেন তা বুঝে উঠতে না পেরেই সুকৌশলে নিজের হাঁটি হাটে ভেঙে দিয়েছেন সোনালি (Sonali Guha)৷ এবিষয়ে বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্যর কটাক্ষ, ‘‘ওরাই (সোনালিরা) বলেছিলেন, ওখানে দম বন্ধ হয়ে আসছিল৷ আবার ওরাই ওখানে (তৃণমূল) ফিরতে চাইছেন৷ ভাল!’’

আরও পড়ুন : মৃত্যুশয্যায় মুসলমান রোগীকে কলমা পড়ে শোনালেন হিন্দু চিকিৎসক

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest