খদ্দের সেজে পাচারকারীদের টোপ, হাতির দাঁত-সহ পুলিশের জালে ৭

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

খাস কলকাতা থেকে পাচারের আগে উদ্ধার দুটি হাতির দাঁত। জানা গিয়েছে, জ্যাংরা এলাকার একটি বাড়িতে হানা দিয়ে উদ্ধার হয়েছে এই দুটি হাতির দাঁত। সেগুলির আসল নাকি নকল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। আটক করা হয়েছে মোট ৭ জন।অনুমান, বেঙ্গালুরু থেকে কলকাতায় (Kolkata) আনা হয়েছিল দাঁতদুটি। যার আনুমানিক বাজার দর ৩০ লক্ষ টাকা।

বনদফতরের ক্রাইম কন্ট্রোল সেল এবং বাগুইআটি থানা যৌথ ভাবে এই অভিযান চালিয়েছে। গোপন সূত্রে তাদের কাছে খবর ছিল জ্যাংরা এলাকার ওই নির্দিষ্ট বাড়িতে দুটি হাতির দাঁত রয়েছে। সেগুলো বিক্রির জন্য ক্রেতার খোঁজ চলছে। এই সূত্র ধরেই অভিযানে নামেন আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন : নিরাপদ নয় ব্যাঙ্কের লকারও, বর্ধমানে উধাও প্রায় ৭০ ভরি গয়না, নীরব কর্তৃপক্ষ

জানা গিয়েছে, কিছুদিন আগেই বনদপ্তরের ক্রাইম কন্ট্রোল ব্যুরোর কাছে খবর যায়, বাগুইআটির জ্যাংরায় রয়েছে বহুমূল্য হাতির দাঁত। এরপরই সন্দেহভাজনদের উপর নজরদারি শুরু করা হয়। সুযোগ বুঝে ক্রেতা সেজে পাচারচক্রের সঙ্গে যোগাযোগ করে তদন্তকারীরা।

কথা পাকা হতেই এদিন বাগুইআটি থানার সহযোগিতায় ক্রেতা হিসেবে জ্যাংরার একটি বাড়িতে চড়াও হয় ক্রাইম কন্ট্রোল ব্যুরোর আধিকারিকরা। সেখান থেকে গ্রেপ্তার ও আটক করা হয় ৭ জনকে। পুলিশের অনুমান, ধৃতদের মধ্যে ৩ জন ক্রেতা। জানা গিয়েছে, আটক হওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে দুজন নদিয়া, একজন কলকাতা, দুজন বাগুইআটি ও দুজন অশোকনগর এলাকার বাসিন্দা।

এই ৭ জন প্রত্যক্ষ ভাবে পাচার চক্রের সঙ্গে যুক্ত নাকি এরা নিজেরাই দল বানিয়ে কাজকর্ম করে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এছাড়াও এরা পাচারকারী কিনা, হলে এই চক্রের সঙ্গে আর কে কে যুক্ত আছে, এদের মাধা কে বা কারা সেটাও জানার চেষ্টা চলছে। জ্যাংরার ওই বাড়িতে চলছে চিরুনি তল্লাশি।

আরও পড়ুন : কন্ডোমেরও এক্সপায়ারি ডেট আছে! জানতেন? জেনে নিন জরুরি বিষয়গুলি…

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest