আম জনতার সঙ্গে লাইনে দাঁড়িয়ে নিজের স্বাস্থ্যসাথীর কার্ড নিলেন মমতা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

তিনি মানুষের নেত্রী। তিনি মাটির কাছের মানুষ। চিরদিন তিনি মানুষের মাঝে থেকে রাজনীতি করেছেন। মুখ্যমন্ত্রী হয়েই একদিনের জন্যেও তিনি সে কথা ভোলেননি। মঙ্গলবার লাইনে দাঁড়িয়ে স্বাস্থ্যসাথী (Swasthasathi) প্রকল্পের কার্ড নিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। কালীঘাট জয়হিন্দ ভবনে দুয়ারে সরকার (Duare Sarkar)-এর কর্মসূচিতে তিনি যান। সেখান থেকে ওই কার্ড সংগ্রহ করেন। তার আগে তিনি আর পাঁচজন মানুষের মতো লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলেন।

এদিন পৌনে বারোটা নাগাদ তিনি সেখানে পৌঁছে যান। তাঁকে দেখে অনেকে নমস্কার করেন। তিনিও প্রতি নমস্কার করেন। এরপর সিঁড়ি দিয়ে দোতলায় চলে যান। এবং সেখানে লাইনে দাঁড়িয়ে পড়েন কার্ড নেওয়ার জন্য।সোমবার তিনি সাংবাদিকদের এ ব্যাপারে জানিয়েছিলেন। রাজ্যের মানুষকে আরও ভাল স্বাস্থ্য পরিষেবার দেওয়ার জন্য চালু হয়েছে স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প। এদিন তাঁর জন্মদিন। সাটামাটা জীবনযাপনের জন্য পরিচিত তিনি।

আরও পড়ুন: সাদামাটা জীবনযাপনই তাঁর লড়াইয়ের রসদ, জন্মদিনে জানুন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কিছু অজানা তথ্য

স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের কার্ড নেওয়ার ক্ষেত্রেও একই ছবি দেখা গেল। তিনিও বাকিদের মতোই লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। তারপর কার্ড নেন। আরও অনেক মানুষ লাইনে দাঁড়িয়ে ছিলেন। তিনি মুখ্যমন্ত্রী বলে কোনও লাইন দেবেন না, এমন বার্তা যাতে না যায়, তাই তিনি এ কাজ করলেন। বাকিরা যেমন লাইনে দাঁড়ান, তিনিও তাঁদের মতো লাইনে দাঁড়িয়ে নিজের কার্ড সংগ্রহ করেন।

নবান্নে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন আপনারা জানেন যতদিন সাংসদ ছিলাম, ততদিন বেতন নিইনি। নিজের পয়সায় চা খাই। সার্কিট হাউসে থাকি। আমার একটা তিন লক্ষ টাকার মেডিক্লেম আছে মাত্র। এটাকে রিনিউ করতে হবে। এত কোটি মানুষ যদি স্বাস্থ্যসাথী কার্ড করতে পারেন, তাহলে আমি কেন পারব না?

আরও পড়ুন: মিছিলে গরহাজির শোভন-বৈশাখীর অফিস ঘরে তালা ঝুলিয়ে দিল বিজেপি! ছিঁড়ে দেওয়া হল নেমপ্লেট

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest