West Bengal Assembly Standing committee changes in 8 committee madan mitra and humayun kabir get place

বিধানসভায় BJP’র ছেড়ে যাওয়া ৮ কমিটির মাথায় তৃণমূল বিধায়করা,পদপ্রাপ্তি মদন মিত্র-হুমায়ুন কবীরের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

মুকুল রায়কে পিএসি চেয়ারম্যান করায় ‘গোঁসা’ হয়েছে বিজেপি। যে কারণে বিধানসভার ৪১ টি কমিটির মধ্যে কোনও কমিটিতেই কোনও বিজেপি বিধায়ক চেয়াম্যান থাকবেন না বলে আগেই জানিয়েছিলেন। এরপর ৮ কমিটির ৮ বিধায়ক চেয়ারম্যান পদ থেকে ইস্তফাও দেন। কিন্তু কোনও কমিটির চেয়ারম্যানের আসন তো খালি রাখা যায় না। শুক্রবার তৃণমূল বিধায়কদের দিয়েই সেই কুর্সি ভরাট করলেন বিধানসভার অধ্যক্ষ বিমান বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়।

স্ট্যান্ডিং কমিটির এই রদবদলের জেরে বিধানসভার নানা বিষয়ক ৪১ টি কমিটির মধ্যে ৪০ টি কমিটির চেয়ারম্যানই হলেন তৃণমূলের বিধায়কেরা। অবশিষ্ট মাত্র একটি কমিটি, অর্থাৎ বিধায়ক উন্নয়ন তহবিল কমিটির চেয়ারম্যান পদপ্রাপ্তি হয়েছে আইএসএফ বিধায়ক নওশাদ সিদ্দিকি। রাজ্য বিধানসভায় ইতিপূর্বে কবে কার্যত সব কমিটির চেয়ারম্যানই একটি দল থেকে হয়েছেন তা মনে করতে পারছেন না রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। সূত্রে খবর, আগামী ২৬ জুলাই থেকে বিধানসভার ৪১ টি কমিটির বৈঠক শুরু হবে।

আরও পড়ুন: নন্দীগ্রাম মামলায় শুভেন্দুকে নোটিশ হাইকোর্টের, কমিশনকে নথি সংরক্ষণের নির্দেশ

৮ জনের তালিকায় সেই অর্থে চমক রয়েছে দু’টি নামে। প্রথমজন হলেন কামারহাটির বিধায়ক মদন মিত্র। দ্বিতীয়জন ডেবরার বিধায়ক তথা প্রাক্তন পুলিশকর্তা হুমায়ুন কবীর। বিধানসভা সূত্রে খবর, লেবার কমিটিতে মনোজ টিগ্গার জায়গায় এসেছেন মদন। মিহির গোস্বামীর জায়গা পেয়েছেন সুদীপ্ত রায়। আনন্দময় বমর্ণের জায়গায় এসেছেন হুমায়ুন কবীর। অশোক কীর্তনিয়ার পরিবর্তে পান্নালাল হালদার। কৃষ্ণ কল্যাণীর জায়গায় আব্দুল খালেক মোল্লা। নিখিল রঞ্জন দে-র জায়গায় রুকবানুর রহমান। বিষ্ণু শর্মার জায়গায় তপন দাশগুপ্ত। দীপক বর্মন জায়গায় এসেছেন অশোক চট্টোপাধ্যায়।

তবে আরও একবার পদত্যাগী বিজেপি বিধায়ক দের কাছে অধ্যক্ষ আবেদন করবেন যাতে চেয়ারম্যান পদ থেকে পদত্যাগ পত্র ফিরিয়ে নেন। তাঁরা যদি পদত্যাগপত্র ফিরিয়ে নেন, তাহলে নতুন যাদের চেয়ারম্যান করা হল, তাঁদের পদত্যাগ করতে বলা হবে। এদিন অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়, পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee) এবং ডেপুটি স্পিকার আশিস বন্দোপাধ্যায় বিভিন্ন কমিটির চেয়ারম্যানদের সাফ জানিয়ে দেন, “শুধু ভাতা নেওয়ার জন্য বিধানসভা নয়। স্ট্যান্ডিং কমিটি বৈঠকে গুরুত্ব দিয়ে উপস্থিত থেকে সভা পরিচালনা করতে হবে।” বিজেপি বিধায়কদের কটাক্ষ করে পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, “সদস্য হিসেবে থাকবেন। অথচ চেয়ারম্যান থাকবেন না। এটা ঠিক নয়।”

আরও পড়ুন:  ‘যেখানে খুশি যাক না!’ শুভেন্দুর আদালতে যাওয়ার হুঁশিয়ারি নিয়ে মন্তব্য মুকুলের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest