tips to avoid skin problems due to tight underwear

চাপা অন্তর্বাস অত্যন্ত বিপজ্জনক; হতে পারে বড় বিপদ, এড়াবেন কীভাবে?

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভুল অন্তর্বাস পরার কারণে শারীরিক ক্ষতির আশঙ্কা থাকে। তাই পোশাক যেমন দেখে কেনেন, তেমনই শুধু রং কিংবা ডিজাইন নয়, অন্তর্বাস কেনার সময়ও সতর্ক থাকুন। তা যেন অবশ্যই সঠিক সাইজের হয়।

কী বলছে গবেষণা?
ধূমপান, মদ্যপান, অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন ইত্যাদি পুরুষের বন্ধ্যাত্বের সমস্যা বাড়িয়ে তোলে, এ কথা কমবেশি এখন অনেকেরই জানা। কিন্তু জানেন কী, অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির গবেষণা বলছে, ছেলেদের আঁটসাঁট অন্তর্বাসের কারণে শুক্রাণু বা স্পার্ম কাউন্ট কমে যেতে পারে। ‘হিউম্যান রিপ্রোডাকশন’ জার্নালে প্রকাশিত তথ্য বলছে, বক্সার জাতীয় অন্তর্বাস পরলে শুক্রাণুর সংখ্যা বা ঘনত্ব বেশি ভাল থাকে।

এবার আসা যাক মেয়েদের কথায়। আমেরিকার ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ হেলথের একটি জার্নালে প্রকাশিত রিপোর্ট বলছে, মেয়েরা যদি নিজের সাইজের থেকে ছোট প্যান্ট বা অন্তর্বাস পরেন, তাহলে তাঁদের ইউরিনারি ট্রাক ইনফেকশন হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে। খুব টাইট প্যান্ট পরার কারণে গোপনাঙ্গে ইস্ট ইনফেকশন হতে পারে।

আরও পড়ুন: Pregnancy: ছেলে হবে না মেয়ে, বলে দেবে আপনার শরীরের এই সব লক্ষণ

ফিটিংস মানেই এক সাইজ ছোট নয়
আর যে কোনও একটা অন্তর্বাস নয়। স্টাইল করতে ও টাইট রাখতে গিয়ে এক সাইজ ছোট অন্তর্বাসের দিকে ঝুঁকবেন না। এই প্রবণতা অনেকেরই থাকে। এতে ক্ষতি অনেক। পোশাক কেনার মতোই অন্তর্বাস কেনার আগেও বিশেষ সচেতন থাকুন। এক্সারসাইজের সময় বিশেষ ধরনের (যেমন স্পোর্টস ব্রা) অন্তর্বাস ব্যবহার করুন। খুব টাইট অন্তর্বাস পরলে ঘাম জমে চুলকানি হতে পারে। অন্তর্বাস কেনার সময় খেয়াল রাখুন, তা যেন সুতির বা অন্য কোন নরম কাপড়ে হয়। যাতে র‌্যাশ না হয়। নিজের সাইজ না জানলে, যেখান থেকে কিনছেন, সেই দোকানের কারও সাহায্য নিন।

গবেষণা থেকে জানা গিয়েছে, সারা দিন চাপা অন্তর্বাস পরে থাকলে বুকের হাড়ে ক্ষতি হতে পারে। পিঠে ব্যথা হতে পারে এমনকী, কিছু কিছু গবেষণা বলছে, স্তনে ক্যানসার পর্যন্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

বিপদ এড়াতে

  • অন্তর্বাস কেনার সময় আরাম ও সুস্থতার দিকে খেয়াল রাখুন।
  • ফ্যান্সি ফ্যাব্রিক না কিনে সুতির অন্তর্বাস কিনুন।
  • সারাদিন একই অন্তর্বাসে কাটাবেন না।
  • এক থেকে দেড় মাস পর নতুন অন্তর্বাস কেনা একান্তই জরুরি।
  • এক্সারসাইজের সময় সাধারণ অন্তর্বাস নয়। ঘাম জমে ব্যাকটেরিয়াল সংক্রমণের সম্ভাবনা বাড়ে।
  • ঘুমানোর সময় অন্তর্বাস পরবেন না।
  • অন্তর্বাস সবসময় হাতে কাচুন।
  • ওয়াশিং মেশিন বা ড্রায়ারে পরিষ্কার করবেন না।

আরও পড়ুন: পিল খেয়েও একাধিকবার প্রেগন্যান্ট মহিলা! ৫ সন্তানের মা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest