যোগী আদিত্যনাথের দপ্তরের সামনে গায়ে আগুন মা-মেয়ের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের (Yogi Adityanath) অফিস ও বিধানসভার । রাস্তায় শুক্রবার প্রকাশ্যে সবার সমানে গায়ে কেরোসিন দিয়ে আগুন লাগালেন এক মহিলা ও তাঁর মেয়ে। আমেঠির বাসিন্দা ওই মহিলার অভিযোগ, জমি সংক্রান্ত মামলায় স্থানীয় পুলিশের কোনও হেলদোল নেই। তাই মুখ্যমন্ত্রীর অফিসের সামনেই আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন দুজনে। যা নিয়ে তোলপাড় রাজ্য রাজনীতি।

আরও পড়ুন : ‘গরিবের ১ লক্ষ ৪৭ হাজার কোটি টাকা লুঠ হয়েছে’, মোদী সরকারকে তোপ ডেরেকের

জানা গিয়েছে, একটা নর্দমা দিয়ে প্রতিবেশীদের সঙ্গে অশান্তি চলছিল তাঁদের। বাড়িতে পুরুষ সদস্য না থাকায় প্রতিবেশীরা হুমকি দিচ্ছিল। মে মাস থেকে চলছিল এই সমস্যা। পুলিশকে বারবার জানানো সত্ত্বেও কোনও সুরাহা হয়নি। যার জেরে পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগে এমন মারাত্মক পদক্ষেপ করেন ওই মহিলা। দু’জনকেই উদ্ধার করে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। তবে দু’জনের শরীরের বেশিরভাগ অংশই পুড়ে গিয়েছে। তাঁদের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানানো হয়েছে।

এই ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর মহিলাকে ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেওয়া হয়েছে প্রশাসনের তরফে। সেইসঙ্গে আমেঠির থানার ইনচার্জকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তবে ঘটনা নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজাও। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও সমাজবাদী পার্টির সুপ্রিমো অখিলেশ যাদব (Akhilesh Yadav) যোগী আদিত্যনাথের সরকারকে এই ঘটনার জন্য দায়ী করেছেন। গরিব কল্যাণে এই সরকার ব্যর্থ বলে কটাক্ষ অখিলেশের।

আরও পড়ুন : সুশান্তের মৃত্যুর ঘটনায় আদিত্য চোপড়াকে টানা ৩ ঘণ্টা জেরা করল পুলিস

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest