গুজরাতে মূক-বধির কিশোরীকে ধর্ষণের পর মাথা কেটে খুন, অভিযুক্ত তারই আত্মীয়

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

মূক-বধির এক কিশোরীকে ধর্ষণ করে মাথা কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠল তারই এক আত্মীয়ের বিরুদ্ধে। শনিবার এক নির্জন জায়গা থেকে ওই কিশোরীর দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে গুজরাতের বনসকাঁটা জেলার ডিসাতে।

পুলিশ সূত্রে খবর, শুক্রবার থেকেই নিখোঁজ ছিল কিশোরী। প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, ওই দিন এক আত্মীয়ের বাইকে করে তাকে যেতে দেখা গিয়েছিল। তার পর দিনই মোতি ভাখর নামে পাশেরই একটি গ্রাম থেকে মুণ্ডহীন দেহ উদ্ধার হয় কিশোরীর।

আরও পড়ুন: বিশ্ব খাদ্য দিবসে ৭৫ টাকার কয়েন প্রকাশ প্রধানমন্ত্রীর, দেখে নিন কোথায় পাবেন…..

কিশোরীর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ওই আত্মীয়কে আটক করেছে পুলিশ। তাকে জেরা করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বনসকাঁটা ডেপুটি পুলিশর সুপার কুশল ওঝা। এই ঘটনায় আর কেউ জড়িত ছিল কি না, তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। কিশোরীর আত্মীয়ের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০২ (খুন), ৩৭৬ (ধর্ষণ) এবং ৩৬৪ (অপহরণ) ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কুশল। সন্দেহের ভিত্তিতে তার ২৫ বছরের তুতো দাদাকে আটক করেছে পুলিশ ৷

আরও পড়ুন: New India! বিশ্বের ক্ষুধা সূচকে পাকিস্তান বাংলাদেশের থেকেও পিছনে ভারত

 

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest