‘ধর্ষিত’ হয়ে আত্মহত্যা দলিত কিশোরীর, এ বার বিহারে

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

হাতরাসের পর এবার ঘটনাস্থল বিহার। শুক্রবার বিহারের গয়া জেলায় আত্মহত্যা করেছে এক দলিত কিশোরী। মৃতার পরিবারের অভিযোগ, ওই কিশোরীকে গণধর্ষণ করা হয়েছিল। ইতিমধ্যেই, চারজনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ জানিয়েছিলেন নির্যাতিতার বাবা। মেয়ের সঙ্গে হওয়া সব অন্যায়ের বিচার চেয়েছিলেন। কিন্তু সেই সবের আগেই আত্মহত্যা করেছে ওই কিশোরী। পরিবারের অভিযোগ লাঞ্চনা-অপমান এসব সহ্য করতে না পেরেই আত্মঘাতী হয়েছে তাদের মেয়ে।

পুলিশ সূত্রে খবর, নির্যাতিতার বাবা-মা জানিয়েছেন, রাহুল কুমার, চিন্টু কুমার এবং চন্দন কুমার এই তিন ব্যক্তি তাঁদের মেয়ে গণধর্ষণ করেছে। চতুর্থ ব্যক্তির নাম-পরিচয় এখনও জানা যায়নি।

আরও পড়ুন : বিশ্বের দীর্ঘতম অটল টানেলের উদ্বোধন নমোর, নিমেষে লাদাখ পৌঁছবে সেনার অস্ত্রশস্ত্র

এই ঘটনায় এখনও গ্রেফতার হয়নি কেউই। চার অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি চালাচ্ছে গয়া পুলিশ। মৃতার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে তদন্তের স্বার্থে কথা বলা হচ্ছে। পুলিশ জানিয়েছে, গয়া মেডিক্যাল কলেজে ওই নির্যাতিতা কিশোরীর ময়নাতদন্ত হয়েছে। যদিও এখনও রিপোর্ট হাতে আসা বাকি রয়েছে।

বিহারে বিধানসভা নির্বাচনের ভোটের মুখে এই ঘটনা এখন বিরোধীদের কাছে রাজনৈতিক হাতিয়ার উঠেছে। ভোটের মুখে ওই ঘটনা কংগ্রেস এবং রাষ্ট্রীয় জনতা দল (আরজেডি)-এর কাছে রাজনৈতিক হাতিয়ার হয়ে উঠল বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

এনসিবি-র রিপোর্ট অনুসারে এদেশে প্রতি ১৬ মিনিটে একটি ধর্ষণের ঘটনা ঘটে। প্রতি ২ ঘণ্টায় কোনও না কোনও মহিলাকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়। প্রতি ৩০ ঘণ্টায় একজন মহিলাকে গণধর্ষণ করে খুন করা হয় এই দেশে। বাকি পরিসংখ্যানগুলো আরও ভয়ঙ্কর। এই রিপোর্টের সব পরিসংখ্যান দেখে আঁতকে উঠছেন সকলে।

যেখানে ৯৯ শতাংশ ক্ষেত্রে অভিযোগ দায়ের হয় না। ঝামেলার ভয়ে অনেকেই থানা-পুলিশ করতে চান ন। সেই অর্থে মাত্র ১ শতাংশ ক্ষেত্রে মামলা দায়ের হয়। তাঁর ছবি এমন ভয়াবহ। যদি প্রকৃতির অভিযোগ সামনে আসত তাহলে পরিসংখ্যান যে কোন জায়গায় যেত ভেবে আঁতকে উঠেছেন অনেকে।

আরও পড়ুন : ‘মুখর’ প্রধানমন্ত্রী হাতরাস কাণ্ডে এমন নীরব কেন, প্রশ্ন দেশ জুড়ে

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest