মিঠুন চক্রবর্তীর বাড়িতে RSS প্রধান মোহন ভাগবত, এবার কি বিজেপিতে যোগদান? প্রশ্ন রাজনৈতিক মহলে

এক সময় সুভাষ চক্রবর্তীর স্ত্রী রমলা চক্রবর্তীর হয়ে প্রচারে দেখা গিয়েছিল ‘মহাগুরু’কে। তবে পরবর্তীকালে অবশ্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যসভায় সাংসদ করে পাঠিয়েছিলেন মিঠুন চক্রবর্তীকে।

সামনেই পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচন। বঙ্গে রাজনীতির পারদ চড়া। এর মধ্যেই মুম্বইয়ে মিঠুন চক্রবর্তীর (Mithun Chakraborty) সঙ্গে বৈঠক করলেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত (Mohan Bhagwat)। শিওরে পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচন, ঠিক তার আগে মোহন ভাগবত ও মিঠুন চক্রবর্তীর এই সাক্ষাত্ ঘিরে নতুন জল্পনা শুরু রাজনৈতিক মহলে।

এদিন সকাল ৯টা নাগাদ মিঠুনের মাঢ় স্থিত বাসভবনে পৌঁছান মোহন ভাগবত। মিঠুন চক্রবর্তীর সঙ্গে দীর্ঘক্ষণ রুদ্ধদার বৈঠক করেন আরএসএস প্রধান। তবে কী নিয়ে এই বৈঠক তা নিয়ে মুখ খুলতে চাননি মোহন ভাগবত। তবে মিঠুনের কথায়, ‘ওঁনার সঙ্গে আমার আধ্যাত্মিক আলোচনা হয়েছে’। বাংলার ভোটের আগে এই বৈঠক বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করছ রাজনৈতিক মহল। যদিও এই প্রথম নয়, এর আগে ২০১৯ সালের অক্টোবর মাসে নাগপুরে আরএসএসের সদর দফতরে পৌঁছেছিলেন মিঠুন, তখনও মোহন ভাগবতের সঙ্গে বৈঠক হয়েছিল ছোটপর্দার ডান্সের মহাগুরুর।

আরও পড়ুন: ‘মোদী ছাড়া সব অভিনেতাকে নিয়েই কঙ্গনার সমস্যা’, টুইট ‘নাসিরুদ্দিন’-এর !

পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সাংসদ পদ থেকে ২০১৬ সালে পদত্যাগ করেন মিঠুন। রাজ্যসভার সাংসদ ছিলেন তিনি। স্বাস্থ্যজনিত কারণেই এই পদত্যাগ, জানিয়েছিলেন বর্ষীয়ান অভিনেতা। এরপর আর কোনও রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে দেখা মিলেনি মিঠুনের। মূলত চিটফান্ডে কাণ্ডে নাম জড়ানোর পর নিজেকে অনেকখানি গুটিয়ে নিয়েছিলেন মিঠুন। তবে এদিনের বৈঠকের পর রাজনৈতিক মহলে ফের প্রশ্ন উঠছে, তবে কি এবার বিজেপিতে যোগদান করবেন মিঠুন? উত্তরের অপেক্ষায় অভিনেতার অনুরাগীরা।

এর মধ্যেই ২০১৯ সালে মিঠুনকে নিয়ে অনুপম হাজরার একটি ফেসবুক পোস্ট মিঠুনের রঙ বদল নিয়ে জল্পনা আরও বাড়িয়ে দিয়েছিল। সেই সময় বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা মিঠুনের সঙ্গে তোলা ছবি ফেসবুক পোস্ট করেছিলেন। সেখানে ট্যাগলাইন ছিল শীঘ্র। সেই সময় মিঠুনের বিজেপিতে যোগ দান নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছিল।

আরও পড়ুন: কীভাবে স্বাস্থ্যসাথী কার্ডে চিকিৎসা পাবেন ভেলোরে? জেনে নিন সবটা