Assam: ঘোড়া কেনাবেচার ভয়! শরিকি দলের প্রার্থীদের জয়পুরে ‘রিসর্ট বন্দি’ করল কংগ্রেস

গত ২৭ মার্চ থেকে ৬ এপ্রিল অবধি অসমে তিনদফায় বিধানসভা নির্বাচন হয়েছে।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

তিন আগেই শেষ হয়েছে ভোট গ্রহণ পর্ব। ফল প্রকাশ হতে বাকি একমাস। এ দিকে, ইতিমধ্যেই প্রার্থীদের টোপ দেখিয়ে দল ভাঙাতে পারে বিজেপি(BJP), এই আশঙ্কা তৈরি হয়েছে অসমের কংগ্রেস জোটে। শীর্ষ মহলে খবর পৌছতেই তাই রাতারাতি “প্রার্থী-চুরি”র ভয়ে অসম থেকে রাজস্থানে উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হল কংগ্রেসের ২২ জন প্রার্থীকে। সূত্র অনুযায়ী, অসমের কংগ্রেস জোট, যা “মহাজোট” (Mahajot) নামে পরিচিত, তার মোট ২২ জন প্রার্থীকে জয়পুরের একটি রিসর্টে নিয়ে গিয়ে রাখা হয়েছে।

বছর ঘুরতে না ঘুরতেই রাজস্থানের স্মৃতি ফিরে এল অসমে (Assam)। গতবছর জুলাই মাসেও রাজস্থানে কংগ্রেসের অন্তর্দ্বন্দ্বের সময়ও দলের ভাঙন রুখতে প্রায় একমাস ধরে কংগ্রেসের একাধিক বিধায়ককে জয়পুরের একটি রিসর্টে আটকে রাখা হয়েছিল। দেখা করতে দেওয়া হচ্ছিল না পরিবারের সদস্যদের সঙ্গেও। একইভাবে অসমের ভোটপর্ব মিটতেই ২২ জন প্রার্থীকে সেই একই রিসর্টে একপ্রকার বন্দি করেই রাখা হল।

অসমের প্রার্থীদের জয়পুরে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে জাতীয় কংগ্রেসের মুখপাত্র রণদীপ সিং সুরজেওয়ালা  বলেন, “এটা বিজেপির নতুন পন্থা যে ভোটে হেরে কংগ্রেসে ভাঙন ধরানো। সেই কারণেই জোটসঙ্গীরা নিরাপদ থাকতে চেয়েছেন।”

আরও পড়ুন: তামিলনাড়ু: ভোট পড়ল প্রায় ৬৫ শতাংশ, টাকা বিলির অভিযোগ কমল হাসানের

গত ২৭ মার্চ থেকে ৬ এপ্রিল অবধি অসমে তিনদফায় বিধানসভা নির্বাচন হয়েছে। আগামী ২ মে নির্বাচনের ফল প্রকাশিত হবে।  জয় নিয়ে দুই দলের প্রার্থীদের গলাতেই আত্মবিশ্বাসের সুর শোনা গেলেও আচমকাই দল তথা জোটে ভাঙনের ভয়ে প্রার্থীদের ভিনরাজ্যে লুকিয়ে রাখা হল।

“মহাজোটে” কংগ্রেস ছাড়াও বদরুদ্দিন আজমলের এআইইউডিএফ, সিপিএম, সিপিআই, এএনপি, বিপিএফ, আরজেডি সহ মোট দশটি দল রয়েছে। সম্প্রতি অসমে দ্বিতীয় দফার ভোটগ্রহণের পর এক বিজেপি প্রার্থীর গাড়ি থেকে ইভিএম উদ্ধার হয়, তখন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী, প্রিয়ঙ্কা গান্ধী সহ একাধিক জোট প্রার্থীরা  বিজেপির বিরুদ্ধে ইভিএম লুটের অভিযোগ তুলেছিল। তার কয়েকদিনের মধ্যেই এ বার কংগ্রেসের নতুন অভিযোগ, ফল প্রকাশের আগেই প্রার্থীদের প্রলোভিত করার চেষ্টা করছে বিজেপি।

পশ্চিমবঙ্গেও বিজেপি ঘোড়া কেনাবেচা করতে পারে এমন আশঙ্কা করেছেন শাসক দলের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি প্রচার সভায় গিয়ে দাবি করেছেন ২০০ আসনের বেশি ভোট না পেলে বিজেপি গদ্দারদের কিনে নিয়ে সরকার গড়বে। অর্থাৎ বঙ্গে যে বিজেপি ঘোড়া কেনাবেচা করে সরকার গড়ার ছক কষতে শুরু করে দিয়েছে তার আন্দাজ করতে পারছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতার এই বার্তার পরেই বঙ্গের রাজনৈতিক মহলে শোরগোল পড়ে গিয়েছে।

আরও পড়ুন: হিমাচলের পুর ভোটে বড় ধাক্কা বিজেপির

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest