আলওয়ার গণধর্ষণ-কাণ্ডে চার অভিযুক্তের আমৃত্যু কারাবাস

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

গোটা দেশ যখন হাথরাসের গণধর্ষণ কাণ্ড নিয়ে উত্তাল। সেইসময় রাজস্থানের আলোয়ারে এক বছর এক গণধর্ষণ কাণ্ডে চার আসামীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিল বিশেষ আদালত। ধর্ষণের সময় নির্যাতিতার ভিডিয়ো রেকর্ড করে রাখা এবং পরে তা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়ার দায়ে পাঁচ বছরের সাজা হয়েছে পঞ্চম জনের।

গত বছর এপ্রিলে আলোয়ারে এক দলিত তরুণী পাঁচজনের বিরুদ্ধে গণধর্ষণের অভিযোগ দায়ের করেন। স্বামীকে বেঁধে রেখে পাশবিক নির্যাতন করা হয়েছিল বলে অভিযোগ। তারপর ধর্ষণের দৃশ্য ভিডিও করে সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেন নির্যাতিতা। এই ঘটনায় গত বছর পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগে উত্তাল হয় দেশ।  সেই মামলায় এক বছর পর সাজা ঘোষণা হল।

আরও পড়ুন : ‘তোমার দেহের প্রতিটা ইঞ্চি ভোগ করব’, ইমনকে অশ্লীল আক্রমণ ‘ছোটোলোক’ নেট নাগরিকের

আদালত জানিয়েছে, চার আসামী হংসরাজ গুর্জর, ছোটেলাল গুর্জর, অশোক গুরর্জর এবং ইন্দরাজ গুর্জরকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। পঞ্চম অভিযুক্ত মুকেশকে গণধর্ষণের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেওয়ার অপরাধে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

২০১৯ সালের এপ্রিল মাসে ওই পাঁচ জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছিলেন ১৯ বছরের এক দলিত মহিলা। তিনি জানান, ২৬ এপ্রিল অলওয়ার-থানাগাজি হাইওয়ে ধরে যাওয়ার সময় তাঁকে ও তাঁর স্বামীকে অপহরণ করে ওই দুষ্কৃতীরা। মোটরবাইকে চেপে বালিয়াড়ির উপর দিয়ে তাঁদের টেনে হিঁচড়ে নিয়ে যায় তারা। তার পর স্বামীর চোখের সামনে একে একে তাঁকে ধর্ষণ করে। গোটা ঘটনা ক্যামেরাবন্দি করার পাশাপাশি, তাঁদের কাছ থেকে ২ হাজার টাকা লুঠ করে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা।

আরও পড়ুন : গোটা বিশ্বে নিজেদের তৈরি করোনা ভ্যাকসিন পৌঁছে দিতে চাইছে চিন!

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest