এবার গুজরাতের হাসপাতালে আগুন, মৃত্যু কমপক্ষে ১৮ জন রোগীর, শোকপ্রকাশ মোদীর

এর আগে মুম্বইয়েও দুবার দুটি কোভিড হাসপাতালে আগুন লাগে এবং একাধিক রোগী মৃত্যু হয়।

আবারও আগুন লাগল গুজরাতের করোনাভাইরাস হাসপাতালে। শুক্রবার মধ্যরাতের পর ভাইরুচের একটি বেসরকারি করোনাভাইরাস হাসপাতালে আগুন লেগে মৃত্যু হল কমপক্ষে ১৮ জন রোগীর। ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। টুইটারে তিনি বলেন, ‘ভারুচের হাসপাতালে অগ্নিকাণ্ডে প্রাণহানির ঘটনায় ব্যখিত। পরিবারের প্রতি সমবেদনা।’

শুক্রবার মধ্যরাতে আচমকাই আগুন লাগে গুজরাটের ভারুচের একটি হাসপাতালে। ঘটনাস্থলে দমকল এসে এক ঘণ্টার মধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণ করতে পারলেও বাঁচানো যায়নি ১৮ জন রোগীকে।

ভারুচের পুলিশ সুপার রাজেন্দ্রাসীন চূড়াসামা জানান, ভারুচ-জাম্বুসার হাইওয়ের উপর অবস্থিত ওই হাসপাতালটি একটি ট্রাস্ট দ্বারা পরিচালিত। শুক্রবার রাত একটা নাগাদ আচমকাই আগুন লাগে। সেই সময় হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন ৬০ জনেরও বেশি রোগী।

আরও পড়ুন: EXIT POLLS: ইতিহাস গড়বে লাল ঝড় নাকি আসবে হাত-পদ্ম? কী বলছে কেরলের বুথ ফেরত সমীক্ষা?

আগুন লাগার ঘটনা নজরে আসতেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ দমকলে খবর দেয়। কিছুক্ষণের মধ্যেই ঘটনাস্থান পৌঁছয় দমকল। স্থানীয়দের সহায়তায় এক ঘণ্টার মধ্যেই আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়। হাসপাতালের ভিতর থেকে উদ্ধার করে আনা হয় ৫০ জন রোগীকে। তবে আগুনে পুড়ে ও ধোঁয়ায় শ্বাসকষ্ট হয়ে মৃত্যু হয় ১২ জন রোগীর। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলেই আশঙ্কা।  পরে সকাল সাড়ে ছটা নাগাদ পুলিশের তরফে জানানো হয় যে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৮-এ পৌঁছেছে। তবে আগুন লাগার সঠিক কারণ এখনও জানা যায়নি।

এর আগে মুম্বইয়েও দুবার দুটি কোভিড হাসপাতালে আগুন লাগে এবং একাধিক রোগী মৃত্যু হয়। এই বিষয়ে একটি মামলার শুনানিতে আদালতের তরফেও বলা হয় যে, হাসপাতালগুলিকে জতুগৃহ করে রাখা যাবে না।

আরও পড়ুন: জাকিরের বিরুদ্ধে রেড নোটিশ খারিজ ইন্টারপোলের, মুখ পড়ল মোদী সরকারের