করোনা অদৃশ্য শত্রু , জয়ী হবেন দেশের যোদ্ধারাই, মোদীর ভাষণের দিনেই সংক্রমণে ৭ নং উঠে এল ভারত

নয়াদিল্লি: প্রধানমন্ত্রী বলেন ভাল। তাঁর ভাষণের ভঙ্গিও অসাধারণ। অবশ্য ভক্ত ছাড়া বাকি অনেকের বক্তব্য আবেগে আর সুড়সুড়ি লাগছে না মোটেও। সোমবার ফের তিনি বললেন, করোনাভাইরাস অদৃশ্য শত্রু হতে পারে, কিন্তু এর বিরুদ্ধে যাঁরা লড়াই চালাচ্ছেন তাঁরাও কম কোনও অংশে কম নন। এই অদৃশ্য শত্রুকে হারিয়ে জয় হবে তাঁদেরই।

সোমবার থেকে শুরু হয়েছে লকডাউন ৫.০। দেশের কনটেনমেন্ট এলাকায় জারি থাকবে লকডাউন। অন্যান্য জায়গায় কার্যত আনলক-১। এর মধ্যেই আজ কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় এক গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে যোগ দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।  মোদী মন্ত্রিসভায় দ্বিতীয় দফায় এটাই প্রথম মন্ত্রিসভার বৈঠক।

আরও পড়ুন: ১ জুন থেকে বাড়ল রান্নার গ্যাসের দাম, জেনে নিন নয়া দাম…

এ দিন দেশের করোনা যোদ্ধাদের উদ্দেশে ভিডিয়ো কনফারেন্সে ভাষণ দেন প্রধানমন্ত্রী। করোনার বিরুদ্ধে যে ভাবে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন এই সৈনিকরা তার প্রশংসা করেন মোদী। তাঁদের উদ্দেশে মোদী বলেন, “অদৃশ্য বনাম অপরাজেয়দের লড়াই শুরু হয়েছে দেশে। করোনা অদৃশ্য শত্রু ঠিকই, কিন্তু আমাদের যোদ্ধারা, স্বাস্থ্যকর্মীরাও অপরাজেয়। এই যুদ্ধে নিশ্চিত ভাবে জয়ী হবেন তাঁরাই।”

কর্নাটকের রাজীব গাঁধী ইউনিভার্সিটি অব হেলথ সায়েন্সেস-এর রজত জয়ন্তী উপলক্ষে ভাষণ দেন মোদী। করোনা পরিস্থিতি সামলাতে দেশের স্বাস্থ্যকর্মীরা কী ভাবে অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন এই ভাষণেই তা তুলে ধরেন তিনি। করোনা মোকাবিলায় কর্নাটক সরকার যে পদক্ষেপ করেছে তারও প্রশংসা করেছেন মোদী। তিনি বলেন, “করোনা অতিমারিকে যে ভাবে কর্নাটক সরকার সামলাচ্ছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়।”

দেশের এই যোদ্ধাদের উপর কোনও রকম অন্যায় হলে তা কোনও ভাবেই বরদাস্ত করা হবে না বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মোদী। বিরোধী অনেকের অভিযোগ তাঁর ভাষণ একঘেঁয়ে হয়ে গিয়েছে। তিনি বলেন, “আমি স্পষ্ট বলে দিতে চাই, করোনার বিরুদ্ধে যাঁরা সামনে দাঁড়িয়ে লড়াই করছেন, তাঁদের উপর কোনও রকম হিংসা, দুর্ব্যবহার বা হেনস্থার মতো ঘটনা ঘটলে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।”

কেউ কেউ বলছেন করোনা কী পাকিস্তান? তাহলে না হয় আবেগ দিয়ে খানিকটা কাজ হতেও পারত। কিন্তু এক্ষেত্রে মানুষ মরছে।তাঁর এই ভাষণের দিনে বিশ্বের সবচেয়ে প্রভাবিত ১০টি দেশের মধ্যে ৭ নম্বরে উঠে এসেছে ভারত। প্রতি দিনই সংক্রমণে নতুন রেকর্ড তৈরি করছে। পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুও।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের রিপোর্ট অনুযায়ী, দেশে মোট আক্রান্ত এক লক্ষ ৯০ হাজার ৫৩৫। আক্রান্তের দিক থেকে জার্মানি এবং ফ্রান্সকেও টপকে গিয়েছে। মৃত্যুর নিরিখে ছাড়িয়ে গিয়েছে রাশিয়াকেও। এমন অবস্থায় প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে মনে জোর বাড়াতে পারা খুবই কঠিন। বলছেন আম জনতা।

আরও পড়ুন: করোনা মোকাবিলায় লড়ছে রিলায়েন্স, নামমাত্র খরচে দিনে তৈরি করছে 1 লক্ষ পিপিই

Gmail 3