খাস গুজরাতে মিমের দাপট, বিজেপির থেকে গোধরা পুরসভা ছিনিয়ে নিলেন আসাউদ্দিন

নির্দল প্রার্থীদের দলে টানার চেষ্টা করতে অবশ্য বিজেপি নেতৃত্বও কসুর করেনি। অথচ সব সমীকরণ ভেঙে আসাউদ্দিনের দলেই ভিড়ে যান ৫ জন অমুসলিম কাউন্সিলর।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

গত ১৯ বছরে যা হয়নি, সেটাই হল। নরেন্দ্র মোদী, অমিত শাহের রাজ্যে গুজরাতের গোধরা পুরসভার দখল হারাল গেরুয়া শিবির। ‘হিন্দুত্বের গড়ে’ ৫ জন অমুসলিমসহ ১৭জন নির্দল প্রার্থীকে ট্রাম্প কার্ড করেই ক্ষমতা ছিনিয়ে নিল আসাউদ্দিন ওয়াইসির মিম (AIMIM) ।

জয়ের সম্পর্কে গুজরাতে মিমের রাজ্য সভাপতি সাবির কাবলিওয়ালা বলেন, ‘আমরা বিজেপিকে গোধরায় ক্ষমতায় ফেরা থেকে আটকে দিতে সফল হয়েছি। ৪৪ জনের বোর্ডের মধ্যে ১৭ জন নির্দল প্রার্থী ছিলেন, তাঁদের সঙ্গে পেয়েছি। প্রায় ১৯ বছর পর গোধরা পুরসভা থেকে বিজেপির মতো কট্টর সাম্প্রদায়িক দলকে সরানো গিয়েছে।’

আরও পড়ুন: গ্যাস চেম্বারের উপর দেশ! বিশ্বের ৩০টি দূষিত শহরের মধ্যে ২২টি ভারতের

বিজেপি যদিও ৪৪ সদস্যের গোধরা পুরসভার ১৮টা সিটে জিতেছে। নির্দল প্রার্থী জিতেছেন ১৮ জন। সেখানে মিম-এর প্রার্থীই ছিলেন সাকুল্যে ৭ জন। কোনও দলই সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। কিন্তু সেই নির্দল প্রার্থীদের দিয়েই শেষমেশ বাজিমাত করল ওয়াইসির মিম। ১৭ নির্দল প্রার্থীদের সমর্থনেই গোধরায় হল পালাবদল।

নির্দল প্রার্থীদের দলে টানার চেষ্টা করতে অবশ্য বিজেপি নেতৃত্বও কসুর করেনি। অথচ সব সমীকরণ ভেঙে আসাউদ্দিনের দলেই ভিড়ে যান ৫ জন অমুসলিম কাউন্সিলর। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি গোধরা পুরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আজ থেকে প্রায় ১৯ বছর আগে ২০০২ সালে গোধরা পুরসভায় ক্ষমতায় আসে বিজেপি।

আরও পড়ুন: সাত সকালে শতাব্দী এক্সপ্রেসে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড! আগুন নিয়ন্ত্রণে দমকলের ৪টি ইঞ্জিন

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest