বুধবারও হুড়মুড়িয়ে পড়ল সোনার দামে, তবে এখনই সোনায় বিনিয়োগের সময় নয়, বলছেন বিশেষজ্ঞরা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

গত সপ্তাহ থেকে প্রতি নামতে শুরু করেছে সোনা ও রুপোর দর। আন্তর্জাতিক বাজারে দামে স্থিতাবস্থা বহাল থাকায় ভারতীয় বাজারে হুড়মুড়িয়ে নামল দাম। এ দিন এমসিএক্স সূচকে ০.৫% পতনের জেরে প্রতি ১০ গ্রাম সোনার দাম যাচ্ছে ৫০,৩৮৬ টাকা। গত তিন দিনে এই নিয়ে দ্বিতীয় বার উল্লেখযোগ্য হারে পড়ল সোনার দর।সূচকে ২% পতনের ফলে প্রতি কেজি রুপোর দাম যাচ্ছে ৬১,২৬৭ টাকা।

গত অধিবেশনে সোনার দাম সূচকে ১% অর্থাৎ ১০ গ্রামে ৫০০ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছিল এবং রুপোর দাম কেজিতে ১,৯০০ টাকা বেড়েছিল। যদিও চলতি সপ্তাহের শুরুতে সোনার দাম নেমে প্রতি ১০ গ্রামে দাঁড়ায় ৪৯,৫০০ টাকা।

আরও পড়ুন : বাবরি ধ্বংস ‘পরিকল্পিত নয়’, আডবাণী-জোশী-সহ ৩২ জন অভিযুক্তকেই বেকসুর খালাস

আন্তর্জাতিক বাজারে এ দিন সোনার দামে ন্যূনতম বৃদ্ধি দেখাগিয়েছে। স্পট গোল্ড সূচকে ০.১% বৃদ্ধির জেরে দাম যাচ্ছে প্রতি আউন্স ১,৮৯৬ডলার। তবে সূচকে ০.২% বৃদ্ধি হওয়ায় প্রতি আউন্স রুপোর দাম দাঁড়িয়েছে ২৪.২২ ডলার।

মার্কিন ডলারের দর বৃদ্ধির পূর্বাভাস পেয়ে সোনায় বিনিয়োগের হার কমেছে, যার প্রভাব পড়েছে তার দামেও। তবে বর্দ্ধিত মুনাফার ক্ষেত্রে আউন্সপ্রতি ১,৯০০ ডলারের নীচে সোনার দাম নামার সম্ভাবনা প্রায় নেই। পরে বাজার চাঙ্গা হবে বলেও জানিয়েছে সংস্থা।

কলকাতায় প্রতি দশ গ্রাম পাকা সোনার (২৪ ক্যারাট) দাম ৫০ হাজার টাকার আশেপাশে ঘোরাফেরা করছে। গিণি সোনার (২২ ক্যারাট) ক্ষেত্রে প্রতি দশ গ্রামের দাম ৪৮ হাজার টাকার ঘরে। ফলে সোনার দাম কমার ধারা যে অব্যাহত রইল, তা বলাই যায়।

তবে বাড়ির জন্য সোনা কেনা অথবা সোনাতে বিনিয়োগ, দুটি ক্ষেত্রেই খুব একটা আশার কথা শোনাচ্ছেন না বিশেষজ্ঞরা। আপাতদৃষ্টিতে দামের পতন বিনিয়োগকারীদের উৎসাহ দিলেও বাস্তব চিত্র কিছুটা ভিন্ন।পঞ্চাশ হাজার টাকার সোনা কিনলে কর দিতে হতে পারে প্রায় হাজার চারেক টাকা।” ফলে বাজারে দাম কমার সুবিধে কর দিতে গিয়েই খোয়াতে হতে পারে বলে মত ব্যবসায়ীদের।

বিশেষজ্ঞদের মতে সোনা এখনই দীর্ঘমেয়াদি বিনিয়োগের জন্য আদর্শ নয়।সোনার প্রকৃত দর বিচার করতে গেলে ডলার প্রতি টাকার মূল্যকেও নজরে রাখতে হবে। সেটা দেখলেই বোঝা যায়, সোনাতে বিনিয়োগ করার আদর্শ সময় এখন একেবারেই নয়।

আরও পড়ুন : হাথরস ধর্ষিতার দেহ মধ্যরাতে জোর করে পুড়িয়ে দিল যোগীর পুলিশ,অবশেষ হস্তক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর

 

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest