‘মোদীর তৈরি বিপর্যয়’-এ ভুগছে দেশ, ফাঁকা নয়, এবার তালিকা দিয়ে আক্রমণ রাহুলের


‘মোদী মেড ডিজাস্টার্স’ অর্থাৎ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দেশে কী কী ‘বিপর্যয়’ ডেকে এনেছেন। কী কী বিপর্যয় মোদীর তৈরী তার তালিকা প্রকাশ করলেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী।এতদিন ছিল নোটবন্দি এবং তাড়াহুড়ো করে কার্যকর করা জিএসটি। করোনা আবহে ‘মোদির তৈরি’ বিপর্যয়ের এই তালিকায় আরও ৪ ইস্যু যোগ করলেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী (Rahul Gandhi)।

রাহুলের অভিযোগ দেশের অর্থনীতির বেহাল দশা, করোনা পরিস্থিতির ভয়াবহতা এবং সীমান্তে চিনা আগ্রাসন, সবটাই মোদির (Narendra Modi) তৈরি। এবং এসব কিছুর জন্য দায়ী একমাত্র প্রধানমন্ত্রী।এ বার একসঙ্গে সব ইস্যুকে এক জায়গায় এনে আক্রমণ শানালেন কংগ্রেস সাংসদ। জিডিপির নজিরবিহীন পতন, কর্মসংস্থানের বেহাল দশা, চাকরি খোয়ানো, জিএসটি থেকে করোনাভাইরাস— সবই মোদীর তৈরি বিপর্যয় বলে আখ্যা দিয়েছেন রাহুল। বলেছেন, এই সবের জেরে ধুঁকছে দেশ।

আরও পড়ুন : রোজ তাড়ি খেলে ক্যান্সারও সেরে যাবে ! পরামর্শ মন্ত্রীর

মঙ্গলবারই প্রাক্তন অর্থমন্ত্রী পি চিদম্বরম বলেন, ম্যান মেড ডিজাস্টারের জন্য ভগবানকে দোষ দেওয়া উচিত নয়। অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন দেশের শোচনীয় আর্থিক অবস্থাকে ‘ভগবানের মার’ বলে চিহ্নিত করেছিলেন। চিদম্বরম তাঁকেই কটাক্ষ করেন। বুধবার চিদম্বরমের সুরেই রাহুল বলেন, “ভারত এখন মোদী মেড ডিজাস্টারের জন্য ভুগছে।

জিডিপি যে হারে সংকুচিত হয়েছে, আগে কখনও হয়নি। ৪৫ বছরে এত বেকারত্বও দেখা যায়নি দেশে। ১২ কোটি মানুষ কাজ হারিয়েছেন। প্রতিদিন বিশ্বে সর্বোচ্চ হারে কোভিড সংক্রমণ ঘটছে এই দেশে। আমাদের সীমান্তে উপস্থিত হয়েছে শত্রু।”ক্রমিক সংখ্যা ধরে ১ থেকে ৬ পর্যন্ত বিভিন্ন বিষয়ের উল্লেখ করে টুইটারে আক্রমণ শানিয়েছেন রাহুল গাঁধী। সোমবারই কেন্দ্রের প্রকাশিত তথ্যে দেখা গিয়েছে গত বছর এই সময়ের তুলনায় ‘২০-’২১ অর্থবর্ষের প্রথম ত্রৈমাসিকে জিডিপি ২৩.৯ শতাংশ নেমে গিয়েছে। যা গত চার দশকে হয়নি। রাহুল সেই বিষয়টিকে ‘ঐতিহাসিক জিডিপি হ্রাস’ বলে উল্লেখ করেছেন।

কর্মসংস্থানের ভয়াবহ পরিসংখ্যান উঠে এসেছিল করোনা সংক্রমণের আগেই। ওই সময় কেন্দ্রের পরিসংখ্যানেই দেখা গিয়েছিল দেশে কর্মসংস্থানের হার ৪৫ বছরে সর্বনিম্ন। অথচ ২০১৪ সালে প্রথম বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার আগে নরেন্দ্র মোদীর প্রতিশ্রুতি ছিল ২ কোটি চাকরি। এ নিয়ে বিরোধীদের প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে সরকারকে। রাহুল গাঁধী এ দিন সেই বিষয়টিই ফের তুলে ধরেছেন। করোনভাইরাসের জেরে সংগঠিত এবং অসংগঠিত উভয় ক্ষেত্রে প্রচুর মানুষ কাজ হারিয়েছেন। ১২ কোটি মানুষ কাজ হারিয়েছেন বলে রাহুল এ দিন টুইটে উল্লেখ করেন।

‘মোদি মেড ডিজাস্টারে’র তালিকাটি অনেকটা দীর্ঘ করলেন। এক টুইটে তিনি বললেন, মোদির তৈরি এই বিপর্যয়গুলির মাশুল আজ দেশকে দিতে হচ্ছে।
১। দেশের সার্বিক উৎপাদন অর্থাৎ জিডিপি ঐতিহাসিকভাবে ২৩.৯ শতাংশ কমে যাওয়া।
২। ৪৫ বছরে সর্বোচ্চ বেকারত্বের হার।
৩। ১২ কোটি চাকরি বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া।
৪। রাজ্যগুলিকে জিএসটির প্রাপ্য মেটাতে কেন্দ্রের অস্বীকার করা।
৫। বিশ্বের মধ্যে দৈনিক করোনা সংক্রমণ এবং মৃতের সংখ্যার বৃদ্ধি সর্বাধিক হওয়া।
৬। আমাদের সীমান্তে বিদেশি আগ্রাসন।

আরও পড়ুন : UP পুলিশ যে এনকাউন্টার করেনি সেজন্য ধন্যবাদ, বললেন মুক্ত কাফিল