পরিষেবা শুরুর দিনেই ধাক্কা, দিল্লি-সহ বিভিন্ন শহরে বাতিল বহু বিমান

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

নয়াদিল্লি: দু’মাস লকডাউন থাকার পর সোমবার প্রথম আন্তঃরাজ্য বিমান চলাচল শুরু হয়। কিন্তু দিল্লি ও মুম্বই বিমানবন্দরে একাধিক উড়ান বাতিল থাকায় যাত্রীদের মধ্যে শুরু হয় ক্ষোভ। উড়ান বাতিলের নোটিফিকেশন অবধি দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ করছেন যাত্রীরা। উড়ান চালু হওয়ার অপেক্ষায় বিমানবন্দরে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে রয়েছেন যাত্রীরা।

সংবাদ সংস্থা সূত্রে জানা গিয়েছে, এ দিন বিভিন্ন শহর থেকে দিল্লিগামী ও দিল্লি থেকে বিভিন্ন শহরের উদ্দেশে যাওয়ার মোট ৮২টি বিমান বাতিল করা হয়েছে। আর তা নিয়ে এয়ার ইন্ডিয়ার বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন বিমানবন্দরে অপেক্ষায় থাকা যাত্রীরা। দিল্লি বিমানবন্দরের টার্মিনালেই বিক্ষোভ দেখান যাত্রীদের একাংশ। সোশাল মিডিয়াতেও প্রতিবাদের ঝড় তোলেন তাঁরা। তাঁদের অভিযোগ, আগাম কোনও তথ্য ছাড়াই একেবারে শেষ লগ্নে  উড়ান বাতিল করে দেওয়া হয়েছে। এর ফলে হয়রানির শিকার হন যাত্রীরা।

এ দিন দিল্লি থেকে ১২৫টি বিমান দেশের বিভিন্ন শহরের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার কথা ছিল। দিল্লিতে নামার কথা ছিল ১১৮টি বিমানের। বিমানে বাড়ি ফেরার অপেক্ষায় ছিলেন বহু যাত্রীই। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা আর হয়ে ওঠেনি। একের পর এক বিমান বাতিল করে দেওয়া হয়। শেষ মুহূর্তে বিমান বাতিল হওয়ায় প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন যাত্রীরা। দিল্লি বিমানবন্দরের তিন নম্বর টার্মিনালে তাঁরা বিক্ষোভ দেখান। এ নিয়ে সোশাল মিডিয়াতেও একের পর এক পোস্ট করতে থাকেন। যাত্রীদের অভিযোগ, বিমান যে বাতিল করা হয়েছে তা শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত তাঁরা জানতে পারেননি।

আরও পড়ুন: করোনা কি বিমানে ছড়ায় না? মাঝের আসনে যাত্রী কেন? সুপ্রিম কোর্টে তিরষ্কৃত কেন্দ্র

একই ছবি দেখা গিয়েছে মুম্বইয়ের ছত্রপতি শিবাজি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরেও। এ দিন সেখানে মোট ৫০টি বিমান ওঠানামার কথা ছিল। এ দিন সেখানে ভোর থেকেই যাত্রীদের ভিড় বাড়তে শুরু করেছিল। টার্মিনালে যাত্রীদের লাইনও ক্রমশই লম্বা হতে শুরু করে। যাত্রীদের থার্মাল স্ক্রিনিং চলছিল। তাঁদের মোবাইলে ‘আরোগ্য সেতু’ অ্যাপ রয়েছে কিনা তাও-ও খতিয়ে দেখা চলছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বিমান বাতিল হয়ে যাওয়ায় হতাশ হয়ে পড়েন যাত্রীরা। বিমান চলাচল কখন শুরু হবে তা নিয়েও তীব্র ধোঁয়াশা দেখা দেয় যাত্রীদের মধ্যে।

একই দৃশ্য তৈরি হয় চেন্নাইতেও।  বেঙ্গালুরু থেকেও ন’টি বিমান বাতিল করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: ১১ বছর পর ইদে এল না সলমনের ফিল্ম, ভক্তদের জন্য অন্য সারপ্রাইজ ভাইজানের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest