করোনা রুখবে চার আয়ুর্বেদিক ওষুধ! ট্রায়াল শুরু হবে এক সপ্তাহের মধ্যে

নয়াদিল্লি: করোনাভাইরাসের মোকাবিলায় চারটি আয়ুর্বেদিক ওষুধের পরীক্ষা করা হবে এক সপ্তাহের মধ্যেই। দেশের আয়ুশ মন্ত্রী শ্রীপদ ওয়াই নায়েক ট্যুইট করে এই কথা জানিয়েছেন। এই চারটি ওষুধের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে এসে গিয়েছে বলে দাবি করেছেন তিনি।

করোনা প্রতিরোধে দেশের সনাতন আয়ুর্বেদিক ওষুধগুলির গবেষণা শুরু হয়েছে। আয়ুষ মন্ত্রক জানিয়েছে, অশ্বগন্ধা, যষ্টিমধু, গুড়ুচি পিপলি বা গুলঞ্চ এবং আয়ুষ ৬৪—এই চার আয়ুর্বেদিক ওষুধ করোনার প্রতিষেধক হতে পারে। এই চার ওষুধের মিশ্রণ প্রোফাইল্যাক্টিক ড্রাগ হিসেবে ব্যবহার করা হবে। ঝুঁকিপূর্ণ কাজ যাঁরা করেন যেমন ডাক্তার, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, প্যারাডেমিক্যাল স্টাফ, তাছাড়া করোনা মোকাবিলায় জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যুক্তদের প্রথম এই আয়ুর্বেদিক প্রতিষেধক দেওয়া হবে। পরে করোনা রোগীদের উপর ট্রায়াল করা হবে।

আরও পড়ুন: চেন্নাইয়ের একটি বাজার থেকেই সংক্রমণ ২৬০০ জনের! আতঙ্কের ছবি তামিলনাড়ুতে

কেন্দ্রীয় আয়ুষ মন্ত্রী শ্রীপদ নায়েক বলেছেন, “আমি আশা করছি করোনা প্রতিরোধে দেশের সনাতন আযুর্বেদ বড় ভূমিকা নিতে পারে। চার ওষুধের কম্বিনেশনের ট্রায়াল শুরু হবে আর এক সপ্তাহের মধ্যেই।”

করোনা ঠেকাতে আয়ুর্বেদের পাশাপাশি হোমিওপ্যাথির থেরাপির কথাও বলেছে আয়ুষ মন্ত্রক। করোনার প্রতিষেধক সেভাবে বলা না গেলেও সংক্রমণের বিরুদ্ধে শরীরের রোগ প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য হোমিওপ্যাথির চিকিৎসা শুরু হয়েছে দেশজুড়েই। কেন্দ্রের আয়ুষ মন্ত্রক ও সেন্ট্রাল কাউন্সিল অব হোমিওপ্যাথি (CCRH) যৌথ উদ্যোগে হোমিওপ্যাথি ওষুধ আর্সেনিকাম অ্যালবাম ৩০ বা আর্সেনিকাম অ্যালবাম ৩০ সিএইচ (Arsenicum album 30CH)-এর ট্রায়াল চলছে মহারাষ্ট্রের পুণে ও মুম্বই, গুজরাট, কেরল ও পশ্চিমবঙ্গের মেদিনীপুরে।

আরও পড়ুন: দেশপ্রেম জাগাতে ৩ বছরের মেয়াদে বাহিনীতে আমআদমি! প্রস্তাব ভারতীয় সেনার

Gmail 1