কোভিড মোকাবিলা নিয়ে বিল গেটসের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্স নমোর, ভ্যাকসিন নিয়ে জরুরি আলোচনা

নয়াদিল্লি: গোটা পৃথিবী কী ভাবে একযোগে করোনাভাইরাসের মোকাবিলা করবে, সেই বিষয়ে বিল গেটসের সঙ্গে আলোচনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এই প্যানডেমিকের চিকিত্‍সার জন্য গবেষণার বিষয়েও আলোচনা হয় তঁদের মধ্যে। বৃহস্পতিবার ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে আলোচনা করেন দু-জনে।

করোনা মোকিবিলায় ভারতের ভূমিকা নিয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন বিল গেটস। এই স্বাস্থ্য সংকটে ভারত কী কী পদক্ষেপ করেছে তাও বিল গেটসের সামনে তুলে ধরেন মোদী। প্রযুক্তির সাহায্যে কী ভাবে করোনা পরিস্থিতি সামলানো যায় সেই বিষয়ে বিল গেটসের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে বলে ট্যুইট করে জানান নরেন্দ্র মোদী।

কোভিড ভ্যাকসিন তৈরির কাজে সক্রিয় ভূমিকা নিয়েছে বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। বিভিন্ন বায়োটেক ও সায়েন্স রিসার্চ ফার্মকে আর্থিক অনুদান দিয়ে সাহায্য করছে বিল গেটসের ফাউন্ডেশন। পেনসিলভানিয়ার বায়োটেক ফার্ম ইনোভিও ফার্মাসিউটিক্যালসকে ইতিমধ্যেই কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন গবেষণার জন্য বিরাট অঙ্কের টাকা অনুদান দিয়েছে বিল এবং মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন এবং কোয়ালিশন ফর এপিডেমিক প্রিপেয়ার্ডনেস ইনোভেশনস।

কোভিড মোকাবিলায় বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনের ভূমিকা নিয়েও প্রশংসা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। টুইট করে তিনি বলেছেন, “বিল গেটসের সঙ্গে কোভিড মোকাবিলা নিয়ে বিস্তারিত ও প্রয়োজনীয় আলোচনা হল। কোভিড রুখতে ভারত কী কী পদক্ষেপ নিচ্ছে সেটাও উঠে আসে আলোচনায়। কোভিড ভ্যাকসিন তৈরির বৈজ্ঞানিক গবেষণার কাজে বিল গেটস ফাউন্ডেশনের ভূমিকা প্রশংসনীয়।”

আরও পড়ুন: গত ২৪ ঘণ্টায় করোনার বলি ১০০, মৃত বেড়ে ২৬৪৯! দেশে আক্রান্ত ৮২ হাজার ছুঁইছুঁই

ভিডিও কনফারেন্সে বিল গেটসকে মোদী জানান, লকডাউন ও সোশ্যাল ডিস্টেন্সিং খুব ভালভাবেই মেনে চলা সম্ভব হয়েছে। দেশের নানা জায়গায় খুব দ্রুততার সঙ্গে হয়েছে র‍্যাপিড টেস্টিং। করোনা আক্রান্তদের শনাক্ত করে চিকিৎসার ব্যবস্থাও হয়েছে। কোভিড মোকাবিলায় দেশের বেশ কিছু রাজ্যের ভূমিকা সত্যিই প্রশংসনীয়। উত্তর-পূর্বের কয়েকটি রাজ্যে সংক্রমণ প্রায় নেই বললেই চলে। কিছু রাজ্যকে করোনা-মুক্ত বলে ঘোষণা করে দেওয়াও হয়েছে।

সংক্রমণ রুখতে দেশের চিকিৎসা পদ্ধতি ও ভ্যাকসিনের কথাও উঠে আসে আলোচনায়। মাইক্রোসফট কর্তাকে মোদী জানান, সংক্রমণ ঠেকাতে দেশের ছয় সংস্থাকে ইতিমধ্যেই ভ্যাকসিন তৈরির বরাত দেওয়া হয়েছে। করোনা প্রতিরোধী ড্রাগ নিয়েও উচ্চমানের গবেষণা ও ক্নিনিকাল ট্রায়াল চলছে। দেশের সনাতন আয়ুর্বেদ নিযেও পরীক্ষানিরীক্ষা হচ্ছে। তাছাড়া পরিচ্ছন্নতা, মাস্ক ও পিপিই-র ব্যবহার, করোনা মোকাবিলায় অগ্রণী ভূমিকা নেওয়া ডাক্তার, স্বাস্থ্যকর্মীদের নিরন্তর প্রচেষ্টার কথাও তুলে ধরেন তিনি। করোনা মোকাবিলায় ভারত আর কী কী পদক্ষেপ নিতে পারে সে ব্যাপারে গেটসের পরামর্শও চেয়েছেন মোদী।

আরও পড়ুন: দেশের নানা প্রান্তের মানুষকে বাংলায় ফেরাতে ১০৫টি ট্রেন, দেখুন পূর্ণাঙ্গ তালিকা…

Gmail 1