টানা ৯ দিন উর্ধ্বমুখী জ্বালানির দর! সেঞ্চুরি পার পেট্রোলের, মহার্ঘ ডিজেলও

জানুয়ারি মাসের পর থেকেই ক্রমাগত রেকর্ড হয়েছে পেট্রোল ডিজেলের দামে।

তেলের দামের রদবদল আন্তর্জাতিক দামের উপর নির্ভর করে। শুধুমাত্র পেট্রোলিয়াম সংস্থাগুলিই তেলের দাম নির্ধারণ করছে। গত ৯ দিনে অপরিশোধিত তেলের দাম ক্রমশ বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে দেশজুড়ে পেট্রল এবং ডিজেলের দামেও তার প্রভাব পড়ছে।

বাজেটের আগে থেকেই বাড়তে শুরু করেছে তরল সোনার দাম। এ বার তা সেঞ্চুরি পার করল। যার ফলে রেকর্ড  ছুঁল পেট্রোল-ডিজেলের দাম। রাজস্থানের শ্রী গঙ্গানগরে প্রতি লিটার পেট্রোলের (Petrol) দাম ১০০ টাকা ছাড়িয়েছে। সেখানে ডিজেলও ৯২ টাকার বেশি। বুধবার নিয়ে টানা ৯ দিন ধরে বাড়ল জ্বালানীর দাম। দাম বেড়েছে কলকাতা, দিল্লি-সহ চারটি মেট্রো সিটিতে।

রাজস্থানের শ্রী গঙ্গানগরে লিটার প্রতি পেট্রোলের দাম ১০০ টাকা ৭ পয়সা। সেখানে ১ লিটার ডিজেলের দাম ৯২ টাকা ১৩ পয়সা। কলকাতায় জ্বালানির দাম বৃদ্ধি হওয়ার দরুন এক লিটার পেট্রোল কিনতে খরচ হচ্ছে ৯০ টাকা ৭৯ পয়সা। প্রতি লিটার ডিজেলের দাম ৮৩ টাকা ৫৪ পয়সা। দিল্লিতে দাম বাড়ার দরুন প্রতি লিটার পেট্রোলের দাম ৮৯ টাকা ৫৪ পয়সা। ডিজেলের দাম ৮৩ টাকা ৫৪ পয়সা।

আরও পড়ুন: ভারতীয় মুসলিম হিসেবে গর্বিত,বিদায়ী ভাষণে বললেন গুলাম নবি আজাদ

মুম্বইতে এক লিটার পেট্রোল কিনতে খরচ হচ্ছে ৯৬ টাকা। ঠাকরে রাজ্যে ডিজেল লিটার প্রতি ৮৬ টাকা ৯৮ পয়সা। সারা বিশ্বে টিকাকরণ চলছে। সেই আবহেই বিশ্ব বাজারে অপরিশোধিত দামের উপর ভর করে রেকর্ড দামে স্পর্শ করেছে তরল সোনা। ওয়েল মার্কেটিং কোম্পানি অর্থাৎ ওএমসিগুলি নির্ধারণ করে দেশের বাজারে পেট্রোল-ডিজেলের দাম। রোজ সকাল ৬ টায় নির্ধারিত হয় বিভিন্ন শহরের পেট্রোল-ডিজেলের দাম।

জানুয়ারি মাসের পর থেকেই ক্রমাগত রেকর্ড হয়েছে পেট্রোল ডিজেলের দামে। সেক্ষেত্রে বিশ্ব বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম বাড়ার প্রভাব পড়ছে দেশের বাজারে, এমনটাই মত ওয়াকিবহাল মহলের একাংশের। অবশ্য বিরোধীদের অভিযোগ, জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধির জন্য দায়ী কেন্দ্রের শুল্কনীতি। বিশ্বের বাজারে দাম কমলেও পেট্রোল, ডিজেলের ওপর শুল্ক বাড়িয়ে দিয়েছে মোদী সরকার। ফলে দাম বাড়ছে।

আরও পড়ুন: পুদুচেরিতে তুঙ্গে রাজনৈতিক ডামাডোল, রাজ্যপাল পদ থেকে অপসারিত কিরণ বেদী