ভূমিপুজোয় মোদীর সঙ্গে ছিলেন একই মঞ্চে, করোনা পজিটিভ রাম মন্দির ট্রাস্টের প্রধানের

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

করোনা সংক্রমণ ধরা পড়ল রামমন্দির ট্রাস্টের প্রধান মোহন্ত নিত্যগোপাল দাসের। গত ৫ অগস্ট রামমন্দিরের ভূমিপুজোর অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবাত, উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সঙ্গে একই মঞ্চে বসেছিলেন মোহন্ত নিত্যগোপাল দাস।

নিত্যগোপাল দাসের করোনা আক্রান্ত হওয়ার খবর মেলার কিছুক্ষণ পরেই একটি ছবি সামনে আসে। যেখানে দেখা যাচ্ছে ভূমিপুজোর অনুষ্ঠান মঞ্চে প্রধানমন্ত্রীর একেবারে গা ঘেঁষে দাঁড়িয়ে ছিলেন তিনি। শুধু তাই নয়। সেই সময়ে মোহন্তের মুখে মাস্কও ছিল না।এমনকি মোহান্তের হাত ধরে মোদী সম্মান জানাচ্ছেন, এরকম ছবিও সামনে আসে। রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘের সরসঙ্ঘচালক মোহন ভাগবতের পাশেও মাস্খীন ভাবে দেখা গিয়েছিল মহন্ত নিত্যগোপাল দাসকে। যা নিয়ে গেরুয়া শিবিরে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে।

রামমন্দিরের সহকারী পুরোহিতের কোভিড আক্রান্ত হওয়ার কথা জানা গিয়েছিল ভূমিপূজনের সপ্তাহখানেক আগেই। সেই সময়েই জানা গিয়েছিল, অযোধ্যায় রামমন্দির প্রাঙ্গনের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ১৬ জন পুলিশকর্মীও কোভিডে আক্রান্ত হয়েছেন। করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কার কথা তুলে ধরে রাম মন্দিরে জাঁকজমকপূর্ণ শিলান্যাস অনুষ্ঠানের আয়োজন নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল বিরোধীরা। তৃণমূল তো বলেই দিয়েছিল, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আগে করোনা সামলে পরে অযোধ্যায় ভূমিপুজো করতে পারতেন। যদিও মন্দির নির্মাণ কর্তৃপক্ষের দাবি ছিল, করোনাভাইরাসের পরিস্থিতিতে যথাসম্ভব স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঘণ্টা দু’য়েকের অনুষ্ঠান হচ্ছে।

আরও পড়ুন: গভীর কোমায় প্রণব মুখোপাধ্যায়, জানাল হাসপাতাল, লাগাতার মৃত্যু গুজবে বিরক্ত পরিবার

যদিও অনেকেই বলছেন, ভূমিপুজোর পর প্রায় আট দিন কেটে গিয়েছে। এখন অন্যদের সংক্রমণের আশঙ্কা ততটা নেই। ভূমিপুজোর কয়েকদিন আগেই করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছিল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের। এখনও তিনি গুরুগ্রামের মেদান্ত হাসপাতালে ভর্তি। সেই সময়েও উদ্বেগ তৈরি হয়েছিল কেন্দ্রীয় সরকারের সর্বোচ্চ স্তরে। কারণ তার দু’দিন আগেই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন শাহ। যে বৈঠকে নয়া শিক্ষানীতি অনুমোদিত হয়েছিল। সেখানে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংরাও উপস্থিত ছিলেন।

শাহের সঙ্গে দেখা করার জন্য কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়-সহ বাংলার বেশ কয়েক জন বিজেপি সাংসদকে কোয়ারেন্টাইনে যেতে হয়। যদিও তাঁদের প্রত্যেকেরই কোভিড টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ আসে।

আরও পড়ুন: স্কলারশিপের ৪ কোটি টাকা হাতাতেই কি খুনের গল্প ফাঁদছে পরিবার? সুদীক্ষার মৃত্যু নিয়ে বাড়ছে রহস্য

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest