‘কেবল বিহার বিনামূল্যে করোনার টিকা পাবে, বাকি রাজ্যগুলো কি পাকিস্তান?’ প্রশ্ন শিব সেনার

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

বিহারের নির্বাচনী ইস্তেহারে বিজেপি ক্ষমতায় ফিরলে বিহারে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন বিলির আশ্বাস দিয়েছে। যা নিয়ে শিব সেনার কটাক্ষ, দেশের বাকি রাজ্যগুলো কি পাকিস্তান যে শুধু বিহারে বিনামূল্যে ভ্যাকসিন বিলির কথা ঘোষণা করা হয়েছে?

শিব সেনার মুখপত্র সামনায় অভিযোগ করা হয়েছে, “করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে নোংরা রাজনীতি করছে বিজেপি। বিহারেরও করোনা ভ্যাকসিন পাওয়া উচিৎ। কিন্তু দেশের বাকি রাজ্যগুলো তো আর পকিস্তান নয়?” মুখপত্রে প্রশ্ন তোলা হয়েছে. “যেখানে গোটা দেশের মানুষ করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করছে। সেখানে ভ্যাকসিন নিয়ে রাজনীতি কেন করা হচ্ছে?”

আরও পড়ুন : করোনা আবহে জমজমাট অষ্টমী, নিখিলের সঙ্গে অঞ্জলি দিলেন নুসরত, হাজির সৃজিত-মিথিলাও

বিজেপির নেতৃত্বকে কটাক্ষ করে সামনায় লেখা হয়েছে, কারা রয়েছেন বিজেপির মাথায়? আজকাল কারা বিজেপিকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন? কয়েকদিন আগেই প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ঘোষণা করলেন জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবাই করোনার ভ্যাকসিন পাবেন। বিহার নির্বাচনী ইস্তেহারে আবার অন্য কথা বলা হচ্ছে। বিহারে বিনামূল্যে করোনার ভ্যাকসিন বিলির প্রতিশ্রুতি দেওয়া হচ্ছে। বিজেপি দ্বিচারিত করছে বলে অভিযোগ করেছেন শিব সেনা।

শুধু নির্বাচনী ইস্তেহার নয়, বিজেপি নেতাদের সভায় সামাজিক দূরত্ব মানা হচ্ছে না বলেও অভিযোগ করেছে শিবসেনা। সামনার সম্পাদকীয়তে লেখা হয়েছে, মহামারীর মধ্যে প্রথম নির্বাচন হচ্ছে বিহারে। এমন আবহে তো জনসভা ভারচুয়াল হওয়া উচিৎ ছিল। নেতারা হেলিকপ্টারে করে বিহারে গিয়ে প্রচার করছেন। এটা হওয়া উচিৎ ছিল না।

বিজেপির প্রকাশ করা সংকল্পপত্রে সবচেয়ে চমকপ্রদ প্রতিশ্রুতি হল ক্ষমতায় ফিরলে বিনামূল্যে সকলের জন্য করোনার ভ্যাকসিনের (Corona Vaccine) ব্যবস্থা করা এবং বিহারবাসীর জন্য ১৯ লক্ষ চাকরি। এছাড়াও, ৩ লক্ষ শিক্ষক নিয়োগ, বিহারকে আইটি হাব হিসেবে গড়ে তোলা, এক কোটি মহিলাকে আত্মনির্ভর করা, স্বাস্থ্যক্ষেত্রে এক লক্ষ চাকরি, ৩০ লক্ষ মানুষের জন্য পাকা বাড়ি, ইত্যাদি বহু প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছে।

নির্বাচন হলে কী করোনা চলে যায় ? এমনিতে প্রধানমন্ত্রী ভার্চুয়াল সভা করেন, কিন্তু বিহারের বেলায় কপ্টার উড়িয়ে তাঁকে যেতে হল কেন ? সেটাও তো ভার্চুয়াল হতে পারত। শিবসেনার এই যুক্তিতে অনেকেই সহমত হয়েছেন। ভোট প্রচারে যদি সাত খুন মাফ হয় তাহলে এমন ঢংয়ের দরকারটাই বা কী।

আরও পড়ুন : অষ্টমীর দিন ধুতি পরল ইউভান, মায়ের কোলে চেপে জানাল শারদীয় শুভেচ্ছা

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest