বকেয়া মেটাতে ১০ বছর সময়, সুপ্রিম রায়ে স্বস্তিতে টেলিকম সংস্থাগুলি

স্পেকট্রাম ব্যবহার ও লাইসেন্স ফি বাবদ বকেয়া প্রায় ১.৬ লক্ষ কোটি টাকার স্পেকট্রাম ও লাইসেন্স ফি (AGR) মেটানোর জন্য ১০ বছর বরাদ্দ করল সুপ্রিম কোর্ট। রায়ে বলা হয়েছে, কয়েকটি কিস্তিতে বকেয়া অর্থ শোধ করতে হবে। টেলিকম সংস্থাগুলোকে বকেয়া বা ঋণ নির্দেশ মেনে শোধ না করা করলে তা আদালত অবমাননা বলে বিবেচিত হবে।

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট এই রায় ঘোষণা করেছে। সেই সঙ্গে বিচারপতি অরুণ মিশ্রের বেঞ্চ আজ নির্দেশ দিয়েছে, ২০২১ সালের ২০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে টেলিকম সংস্থাগুলিকে বকেয়া টাকার অন্তত ৩০ শতাংশ শোধ করতে হবে।

আরও পড়ুন : Covid-19: প্লাজমা থেরাপিতে আপাতত স্থিতিশীল অসমের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী গগৈ

বকেয়া এজিআর গ্রহণ শুরু হবে ২০২১ সালের ১ এপ্রিল থেকে। করোনা জেরে আগামী বছরের মধ্যে বকেয়ার ১০ শতাংশ মিটিয়ে দিতে হবে। ২০৩১ সালের ৩১ মার্চের মধ্যে কিস্তিতে সম্পূর্ণ ধার শোধ করতে হবে। প্রত্য়েক বছর ৭ ফেব্রুয়ারির মধ্যে কিস্তির টাকা জমা করতে হবে।

সুপ্রিম কোর্টের গত বছরের নির্দেশ মেনে বকেয়া না মেটানোর টেলি-সংস্থাগুলির বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া আদালত অবমাননার একটি মামলা এদিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি অরুণ মিশ্র, বিচারপতি এস আবদুল নাজির ও বিচারপতি এম আর শাহকে নিয়ে গঠিত বেঞ্চ মঙ্গলবার এই রায় দেয়।

কেন্দ্রের আইনজীবী, সলিসিটর জেনারেল তুষার মেটা এজিআর মেটানোর জন্য ২০ বছরের সময়সীমা দেওয়ার পক্ষে মতপ্রকাশ করেছিলেন। কিন্তু সুপ্রিম কোর্ট বকেয়া সংক্রান্ত পুনর্মূল্যায়নের প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছিল। শুনানি-পর্বের শেষে গত ২০ জুলাই রায় ঘোষণা ‘স্থগিত’ রেখেছিল শীর্ষ আদালত।

আরও পড়ুন : পূর্ণ রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় শেষকৃত্য সম্মন্ন প্রণব মুখোপাধ্যায়ের, PPE পরে উপাচার সারলেন ছেলে