বলিউডে করোনা: হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন কণিকা, নতুন করে আক্রান্ত শাজা ও জোয়া মোরানি

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

ওয়েব ডেস্ক: বেবি ডল খ্যাত গায়িকা কনিকা কাপুরের পর ফের করোনাভাইরাসে হামলা বলিউডে। এবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন প্রযোজক করিম মোরানির মেয়ে শাজা। গোটা পরিবারকে কোয়ারানটিন করা হয়েছে।

মুম্বইয়ের নানাবতী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে শাজাকে। তাঁদের জুহুর বাড়িতে সেল্ফ কোয়ারানটিনে রয়েছেন পরিবারের নয় সদস্য। এদের সবারই করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করা হবে। শাজা সম্প্রতি বিদেশ থেকে ফেরেননি এবং বিদেশ থেকে ফেরা অন্য কারোর সংস্পর্শ আসেননি বলে দাবি করেছেন করিম মোরানি।

https://img-bengali.indianexpress.com/uploads/2020/04/lead-15.jpg?w=670

আরও পড়ুন: বাজি ফাটাচ্ছেন কেন! এটা কি দীপাবলি চলছে? বিরক্ত হয়ে টুইট সোনমের

করিম মোরানির ছোট ভাই মহম্মদ মোরানি জানান, তাঁর বড় ভাইজি শাজা সম্প্রতি শ্রীলঙ্কায় বেড়াতে যান। অন্যদিকে শাজার বোন জোয়া অর্থাত বলিউড অভিনেত্রী জোয়া মোরানি ফেরেন রাজস্থানের জয়পুর থেকে। জয়পুর থেকে ফেরার পর থেকেই অভিনেত্রী জোয়ার সর্দি, কাশি দেখা দেয়। ফলে চিকিতসকের পরামর্শ নিয়ে কোভিড ১৯-এর পরীক্ষা করানো হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। জোয়ার পাশাপাশি সাজা শ্রীলঙ্কা থেকে ফিরলেও, তাঁর কোনও উপসর্গ দেখা দেয়নি। তাসত্ত্বেও জোয়া এবং শাজা, দুজনেরই করোনা পরীক্ষা করানো হয়।

https://www.instagram.com/p/B7SwXUiBTBW/

পরীক্ষার ফল হাতে পাওয়ার পর জানা যায়, জোয়ার কিছু হয়নি কিন্তু কোনও উপসর্গ না থাকা সত্ত্বেও সাজা কোভিড ১৯-এ আক্রান্ত। এরপরই শাজাকে নানাবতী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অন্যদিকে জোয়াকে ভর্তি করা হয় কোকিলাবেন হাসপাতালে।

আরও পড়ুন:  করোনা চিকিৎসার চাঁদা তুলতে ৩০ হাজার কোটি টাকায় বিক্রি হচ্ছে স্ট্যাচু অফ ইউনিটি!

konika kapoor NEW

 

 

 

 

শাহরুখ খান অভিনীত রা ওয়ান এবং চেন্নাই এক্সপ্রেসের মতো ছবির প্রযোজনা করেছেন করিম মোরানি। মুম্বই পুরসভার অফিসাররা তাঁর বাড়ি পরিদর্শনে আসবেন বলে জানা গিয়েছে। এদিকে সোমবারই হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন গায়িকা কনিকা কাপুর।  সোয়াব পরীক্ষায় গায়িকার দেহে করোনার সন্ধান মেলেনি। প্রথমবারের পরীক্ষায় যখন রেজাল্ট নেগেটিভ আসে, তখনই আশার আলো দেখেছিলেন গায়িকা। কিন্তু সাবধানের মার নেই। তাই আরও একবার তাঁর করোনা পরীক্ষা করা হয়। তখনও রিপোর্ট নেগেটিভই আসে। তারপরই কণিকাকে করোনামুক্ত বলে ঘোষণা করে সঞ্জয় গান্ধী পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্স। সোমবার তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন: এবার পশুর শরীরেও মিলল করোনা! আক্রান্ত চিড়িয়াখানার বাঘ

Gmail

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest