Do you know exactly how and when the call to prayer begins?

জানেন কি ঠিক কীভাবে ও কখন আজানের সূচনা হয় ?

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

আজানের সূচনা কখন হয় : সর্বপ্রথম কখন কোথায় আজানের সূচনা হয়—এ নিয়ে কিছু মতভেদ দেখা যায়। তা হলো—1. সর্বপ্রথম মেরাজের রাতে আজানের সূচনা হয়। মসজিদুল আকসায় জিবরাইল (আ.) আজান ও ইকামত দেন। এবং সেখানে রাসুল (সা.) সব নবীকে নিয়ে নামাজ আদায় করেন। (মাজমাউজ জাওয়ায়েদ : ১/৩২৮)

2. হিজরতের আগে মক্কায় আজানের সূচনা হয়। (হাশিয়াতু ইবনে আবিদিন : ১/৪১৩)

3. রাসুল (সা.) মসজিদে নববী নির্মাণের পর প্রথম হিজরিতে মদিনায় আজানের সূচনা হয়। এই মত বেশি প্রসিদ্ধ। (সহিহ ইবনে খুজায়মা : ১/১৯০)

4. দ্বিতীয় হিজরিতে কিবলা পরিবর্তনের পর আজানের সূচনা হয়। (ফতহুল বারি : ২/৬২)

আজানের শব্দমালার প্রচলন হওয়ার স্পষ্ট ইতিহাস রয়েছে। তাতে মতভেদ নেই।

আবু উমাইর ইবনে আনাস (রা.) তাঁর এক আনসারি চাচা থেকে বর্ণনা করেন, রাসুল (সা.) নামাজের জন্য লোকদের কিভাবে একত্র করা যায়, সে বিষয় নিয়ে চিন্তিত ছিলেন। তা দেখে সাহাবিদের কেউ কেউ পরামর্শ দিলেন, নামাজের সময় হলে একটা পতাকা উড়ানো হোক। তা দেখে একে অন্যকে নামাজের সংবাদ জানিয়ে দেবে। কিন্তু এটা রাসুল (সা.)-এর নিকট পছন্দ হলো না। কেউ কেউ প্রস্তাব করল, শিঙ্গা-ধ্বনি দেওয়া হোক। রাসুল (সা.) এটাও পছন্দ করলেন না। কেননা তা ছিল ইহুদিদের রীতি। কেউ কেউ ঘণ্টা ধ্বনি ব্যবহারের প্রস্তাব করলে রাসুল (সা.) বলেন, ওটা নাসারাদের রীতি।

উপস্থিত সাহাবিদের মধ্যে আবদুল্লাহ ইবনে জায়েদ (রা.) নামে একজন সাহাবি ছিলেন। তিনি রাসুল (সা.)-এর চিন্তার কথা মাথায় নিয়ে সেখান থেকে প্রস্থান করলেন। অতঃপর (আল্লাহর পক্ষ হতে) স্বপ্নে তাকে আজান শিখিয়ে দেওয়া হলো। বর্ণনাকারী বলেন, পরদিন ভোরে তিনি রাসুল (সা.)-এর কাছে এসে বিষয়টি অবহিত করে বললেন, হে আল্লাহর রাসুল, আমি কিছুটা তন্দ্রাছন্ন অবস্থায় ছিলাম। এমন সময় এক আগন্তুক এসে আমাকে আজান ও (ইকামত) শিখিয়ে দিলেন।

বর্ণনাকারী বলেন, একইভাবে ওমর (রা.)ও ২০ দিন আগেই স্বপ্নেযোগে আজান শিখেছিলেন। কিন্তু তিনি কারো কাছে তা ব্যক্ত না করে গোপন রেখেছিলেন। অতঃপর আবদুল্লাহ ইবনে জায়েদ স্বপ্নের বৃত্তান্ত বলার পর তিনিও তাঁর স্বপ্নের কথা রাসুল (সা.)-কে জানালেন। রাসুল (সা.) বললেন, তুমি আগে বললে না কেন? তিনি বলেন, আবদুল্লাহ ইবনে জায়েদ (রা.) এ বিষয়ে আমার আগেই বলে দিয়েছেন। এ জন্য আমি লজ্জিত। রাসুল (সা.) বললেন, বেলাল! ওঠো, এবং আবদুল্লাহ ইবনে জায়েদ তোমাকে যেরূপ নির্দেশ দেয় তুমি তাই করো। অতঃপর বেলাল (রা.) আজান দিলেন। (আবু দাউদ, হাদিস : ৪৯৮)

 

 

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest