এবার গেরুয়া শিবিরের রোষানলে ‘থাপ্পড়’, CAA সমর্থকদের কড়া জবাব দিলেন তাপসী পান্নু

ওয়েবডেস্ক:  ছপাক’-এর পর এবার গেরুয়া শিবিরের রোষানলে ‘থাপ্পড়’। সিএএ-র বিরোধীয় শুরু থেকেই সরব তাপসী পান্নু এবং ছবির পরিচালক অনুভব সিনহা। সেই কারণেই গেরুয়া শিবিরের রোষের মুখে পড়তে হচ্ছে এই ছবিকে। বৃহস্পতিবার দিনভর টুইটারে ট্রেন্ড করেছে #BoycottThappad।

https://twitter.com/karpevikas9951/status/1232726639169040384

তবে ছবি বয়কট প্রসঙ্গে চুপ করে থাকেননি তাপসী। বলেছেন, “অভিনেতা, অভিনেত্রীদের ব্যক্তিগত মতপ্রকাশের স্বাধীনতা থাকা উচিত। তাঁদের ব্যক্তিগত জীবনের সঙ্গে যেন তাঁদের ফিল্মি কেরিয়ারকে গুলিয়ে না ফেলা হয়। হ্যাশট্যাগ ব্যবহার করে ‘থাপ্পড়’কে বয়কট করার যে ট্রেন্ড শুরু হয়েছে, তা একেবারেই ভিত্তিহীন। সিনেমার থেকে একজন অভিনেতা কিছুতেই বড় হতে পারে না। একটি ছবির সঙ্গে কত মানুষের পরিশ্রম জড়িয়ে থাকে, কারও ব্যক্তিগত মতামত প্রকাশের রাগ সিনেমার উপর ঝেড়ে ফেলা কখনোই উচিত নয়।”

ডিসেম্বর মাসে জেএনইউয়ের পড়ুয়ার প্রতি সমবেদনা দেখিয়ে মুম্বইয়ে আয়োজিত এক প্রতিবাদ মিছিলে পা মিলিয়ে ছিলেন তাপসী এবং থাপ্পড় পরিচালক অনুভব সিনহা। প্রতিবাদে সামিল হওয়া সম্পর্কে তাপসী জানিয়েছিলেন, ‘আমি সিএএ সম্পর্কে নিজের মতামত দিই নি কারণ আমি সেটা নিয়ে পড়াশোনা করিনি। কিন্তু জামিয়াতে আমি যা ছবি দেখেছি,সেটা আমাকে নাড়িয়ে দিয়েছে। আমি দুঃখ পেয়েছি সেই সব ভিডিয়ো দেখে যেখানে ছাত্ররা নিজেদের পরিস্থিতির কথা জানিয়েছে। আমার মনে হয়েছি বড় কিছু ঘটেছে বা ঘটতে চলেছে’।তারপর থেকেই লাগাতার গেরুয়া শিবিরের রোষে পড়তে হয়েছে তাঁকে।

শুক্রবার মুক্তি পেল থাপ্পড়। এর আগে পরিচালক অনুভব সিনহার সঙ্গে মুলক ছবিতে কাজ করেছেন তাপসী। ছবিতে এক সাধারণ গৃহবধূ অমৃতা ওরফে আম্মুর চরিত্রে রয়েছেন তাপসী। থাপ্পড়ে অভিনেত্রীর অনস্ক্রিন স্বামীর ভূমিকায় রয়েছেন পাভেল গুলাটি। স্বামী চড় মেরেছে, শুধু এই কারণে স্বামীর বিরুদ্ধে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা দায়ের করে আম্মু। গোটা পরিবার তাপসীকে বোঝানোর চেষ্টা করে একটা চড় খুব সাধারণ বিষয়,এমনটা তো হতেই পারে। মেয়েদের তো একটুকু অ্যাডজাস্টমেন্ট তো করে নিতেই হয়, তবুও নিজের অবস্থানে অনড় আমু। কারণ তাঁর প্রশ্ন,’হ্যাঁ একটাই থাপ্পড়, কিন্তু মারবে কেন’?

‘থাপ্পড়’-এর প্রশংসা করে স্মৃতি ইরানি বলেছিলেন, “পরিচালক অনুভব সিনহার সঙ্গে আমার রাজনৈতিক মতাদর্শের পার্থক্য থাকলেও আমি এই ছবি দেখব। কারণ, প্রত্যেক মেয়েদের এই ছবি দেখা উচিত।”

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবারই কংগ্রেস শাসিত রাজ্য মধ্যপ্রদেশে তাপসীর ‘থাপ্পড়’কে করমুক্ত ঘোষণা করেছে কমলনাথ সরকার। এর আগে দীপিকার পাশে দাঁড়িয়ে বিজেপিকে তোপ দাগতে ‘ছপাক’কেও করমুক্ত করেছিল মধ্যপ্রদেশ সরকার। এক্ষেত্রেও প্রায় একইরকম চিত্র ফুটে উঠল।

উল্লেখ্য, ট্রেলার রিলিজের পর কিন্তু কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি খোদ ‘থাপ্পড়’-এর ভূয়সী প্রশংসা করেছিলেন। কারণ এই ছবি, সমাজে নারীদের অবস্থানের কথা বলে। গার্হস্থ্য হিংসার শিকার হওয়া লক্ষ লক্ষ মেয়েদের গল্প বলে। যা আজকের জন্য ভীষণরকম প্রাসঙ্গিক।