মোদী সরকারের নির্দেশ না মানার ‘শাস্তি’! বুধবার কি দেশে ব্লক হবে ফেসবুক, টুইটার, ইনস্টাগ্রাম?

কেন্দ্রের রোষে পড়তে পারে ফেসবুক (Facebook), টুইটার (Twitter) এবং ইনস্টাগ্রামের (Instagram) মতো শীর্ষস্থানীয় সোশ্যাল মিডিয়া সংস্থাগুলি। অন্তত ২ দিনের জন্য ভারতে ব্লক করে দেওয়া হতে পারে তাদের।
Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest

কেন্দ্রের রোষে পড়তে পারে ফেসবুক (Facebook), টুইটার (Twitter) এবং ইনস্টাগ্রামের (Instagram) মতো শীর্ষস্থানীয় সোশ্যাল মিডিয়া সংস্থাগুলি। অন্তত ২ দিনের জন্য ভারতে ব্লক করে দেওয়া হতে পারে তাদের। আসলে গত ফেব্রুয়ারিতেই সোশ্যাল মিডিয়ায় রাশ টানতে একগুচ্ছ নির্দেশিকা জারি করা হয়েছিল। বেঁধে দেওয়া হয়েছিল সময়সীমাও। কিন্তু আজ, মঙ্গলবারই সেই সময় শেষ হয়ে যাচ্ছে। যদি এর মধ্যে নয়া নির্দেশিকা কার্যকর করা না হয়, তাহলে ওই সোশ্যাল মিডিয়াগুলিকে ব্লক করার পথে হাঁটতে পারে কেন্দ্র।

আরও পড়ুন : Microsoft: বন্ধ হয়ে যাচ্ছে এক সময়ের জনপ্রিয় ওয়েব ব্রাউজার ‘ইন্টারনেট এক্সপ্লোরার’

কেন্দ্রের জারি নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, সোশাল মিডিয়ায় আপত্তিজনক পোস্টের বিরুদ্ধে এবার থেকে সেই পোস্টদাতা ও সংশ্লিষ্ট মাধ্যমকে আদালতে পেশ করা যাবে। ওটিটি প্ল্যাটফর্মগুলির উপর ত্রিস্তরীয় নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা আরোপের কথাও বলা হয়। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকর এবং রবিশঙ্কর প্রসাদ একটি সাংবাদিক বৈঠক করে সোশ্যাল মিডিয়া ও ওটিটি প্ল্যাটফর্মের নয়া গাইডলাইন নিয়ে বিস্তারিত বক্তব্য রাখেন। নয়া বিধি অনুসারে প্রত্যেক সোশ্যাল প্ল্যাটফর্মে অভিযোগ জানানোর জন্য থাকবে একটি বিভাগ। OTT প্ল্যাটফর্মে অভিযোগ পাওয়ার ৭২ ঘণ্টার মধ্যে ব্যবস্থা নিতে হবে।

সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, ২৫ মে এর মধ্যে সোশাল মিডিয়াগুলি নির্দেশিকা লাগুর ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত না জানাতে পারলে ভারতে তাঁদের ব্যবহারে রাশ টানা হবে। বাজেয়াপ্ত ঘোষণা করা হবে। তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৭৯ ধারা অনুযায়ী সোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করা আপত্তিকর কন্টেন্টের জন্য অপরাধমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে।

গত ফেব্রুয়ারিতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ ও প্রকাশ জাভড়েকর এক সাংবাদিক বৈঠকে নতুন নির্দেশিকা সম্পর্কে বক্তব্য রেখেছিলেন। কেবল সোশ্যাল মিডিয়াই নয়, ওটিটি প্ল্যাটফর্ম নিয়েও গাইডলাইন প্রকাশ করা হয় সেই সময়। সেই সময়ই কেন্দ্রের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, সোশ্যাল মিডিয়ায় যেসব আপত্তিকর ভাষা ও বিষয়বস্তু দেখা যাচ্ছে তা এবার থেকে সরকার আর অনুমোদন করবে না। এবং তা রুখতেই এই নয়া নির্দেশিকা।

আরও পড়ুন : সাবধান! হ্যাক হতে পারে আপনার হোয়াটসঅ্যাপ, সতর্কবার্তা Kolkata Police-র

Share on facebook
Share on twitter
Share on linkedin
Share on telegram
Share on whatsapp
Share on email
Share on reddit
Share on pinterest